বছর ঘুরে ঢাবিতে জাতীয় ছায়া জাতিসংঘ

শুরু হতে যাচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সবচেয়ে বহুল প্রতীক্ষিত ছাত্র সম্মেলন “ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জাতীয় ছায়া জাতিসংঘ ২০১৯"। প্রতিবারের মতোই আয়োজনের প্রধান উদ্যোক্তা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছায়া জাতিসংঘ সংগঠন।

সংগঠনটি ২০১২ সাল থেকে নিয়মিত ছাত্র সম্মেলনের আয়োজন করে আসছে যাকে বাংলাদেশ বৃহত্তম ছাত্র সম্মেলন গুলোর একটি হিসেবে বিবেচনা করা হয়ে থাকে । প্রতিবছর ঢাবি জাতীয় ছায়া জাতিসংঘ বা ডানমানে দেশ-বিদেশের নানা স্কুল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ৫০০ শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে থাকে। অনুষ্ঠানটিতে অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকেন বাংলাদেশের ও জাতিসংঘের বাংলাদেশ শাখার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব।

এবছরের সম্মেলন আয়োজিত হবে অক্টোবর ১২ থেকে ১৪ তারিখ পর্যন্ত। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে উদ্বোধন ও সমাপ্তি অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে এবং ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে দুইদিন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা থাকছে।

২৩ আগস্ট থেকে ডানমানের রেজিস্ট্রেশন শুরু করেছে ঢাকা ইউনিভার্সিটি মডেল ইউনাইটেড নেশন্স এসোসিয়েশন (ডি ইউ মুনা), চলবে ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। এবছর ডানমানের অষ্টম বৎসরের আয়োজনে কিছু উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন নিয়ে আসার পরিকল্পনা করেছে আয়োজকেরা । সেই লক্ষ্যে বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধিরা ডানমানকে ঘিরে তাদের অভিজ্ঞতা, আশা ও পরিকল্পনার কথা জানিয়েছে একটি মত বিনিময় সভার মাধ্যমে।

ভিকারুননিসা স্কুল ও কলেজের প্রতিনিধিরা জানান তারা বিগত ডানমান থেকে আন্তর্জাতিক নানা বিষয়াবলী সম্পর্কে জানতে পেরেছেন যা তাদের জ্ঞানের পরিধিকে বাড়িয়েছে। একইসাথে তারা আশা করছেন এবারের কমিটিগুলোর আলোচ্য বিষয়সূচি অত্যন্ত সমসাময়িক ও প্রতিযোগিতামূলক হবে যা তাদের বিশ্বের বর্তমান পরিস্থিতি ও এর সমাধান সম্পর্কে ভাবিয়ে তুলবে।

অপর একজন প্রতিনিধি নটরডেম কলেজের পক্ষ থেকে বলেন, প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত এত বড় সম্মেলন নিজ কলেজের প্রতিনিধি হিসেবে আমি যোগদান করতে পেরে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি।

গত বছরের মতো এ বছরও ডানমানে থাকবে এগারোটি কমিটি। এরমধ্যে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ, বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা, অর্থনৈতিক এবং আর্থিক সংস্থা, বাংলাদেশ বিষয়ক বিশেষায়িত কমিটি ও আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম উল্লেখযোগ্য।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ