এসএসসির ফল প্রস্তুত, যেকোন সময় প্রকাশ

করোনার কারণে ফল প্রকাশের পর শিক্ষার্থীদের উল্লাস এবার দেখা যাবে না।  © ফাইল ফটো

নিয়ম অনুযায়ী, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার শেষ হওয়ার ৬০ দিনের মধ্যে ফল প্রকাশ করে মন্ত্রণালয়। সে হিসেবে চলতি মাসের শুরু দিকে এবারের মাধ্যমিকের ফল প্রকাশ করার কথা ছিল। তবে করোনাভাইরাসের কারণে গত ৮ বছরের মধ্যে এই প্রথম নির্ধারিত সময় ৬০ দিনের আগে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ করতে পারেনি শিক্ষা মন্ত্রণালয়। 

বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশের জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয় বরাবর ফলের তালিকা পাঠানো হয়েছে। সেটি প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠাবে মন্ত্রণালয়। প্রধানমন্ত্রী সময় দিলে সেদিনই ফল প্রকাশ করা হবে।

তবে এবার সংবাদ সম্মেলন করে ফল প্রকাশ করা হবেনা। স্ব স্ব শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটে ফল প্রকাশ করা হবে। পাশাপাশি মুঠোফোনের ক্ষুদেবার্তার মাধ্যমে এবরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল পাবে ফলপ্রত্যাশীরা।

এদিকে, এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল জানাতে প্রি-রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম শুরু করেছেন রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটক। গ্রাহকদেরকে ইতোমধ্যে ক্ষুদেবার্তার মাধ্যমে সে তথ্য জানাতে শুরু করেছে অপারেটরটি। তাতে বলা হয়েছে, চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল এর প্রি-রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

ফলাফল প্রকাশের দিনে স্বাস্থ্য বিধি মেনে ঘরে থেকে সরাসরি মোবাইলে ফলাফল পেতে টেলিটক নাম্বার থেকে মেসেজ করতে হবে। সেজন্য টাইপ করতে হবে এই নিয়মে: SSC<>Board Name<>Roll<>Year। আর এটি পাঠিয়ে দিতে হবে 16222 নাম্বারে। একজন যতবার খুশি ততবার পাঠাতে পারলেও সেজন্য চার্জ প্রযোজ্য হবে।

ফল প্রকাশের বিষয়ে আন্ত:শিক্ষা বোর্ড সভাপতি ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক বলেন, এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রস্তুত রয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পেলে যেকোন সময় ফল প্রকাশ করা হবে।

চলতি মাসের ৭ মে এসএসসি ও সমমানের ফল প্রকাশের কথা ছিল। কিন্তু করোনার কারণে তা পিছিয়ে যায়। এর আগে ৩ ফেব্রুয়ারি এ পরীক্ষা শুরু হয়ে তত্ত্বীয় পরীক্ষা শেষ হয় ২৭ ফেব্রুয়ারি। আর ব্যবহারিক পরীক্ষা ২৯ ফেব্রুয়ারি শুরু হয়ে শেষ হয় ৬ মার্চ।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ