বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের ফ্ল্যাটে তালা দিলেন বাড়িওয়ালা

  © ফাইল ফটো

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে ভাড়া দিতে না পারায় শিক্ষার্থীদের ফ্ল্যাটে তালা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে গোপালগঞ্জের নবীনবাগ এলাকার এক বাড়িওয়ালার বিরুদ্ধে। নবীনবাগে সুফিয়া মসজিদের নিকটে অবস্থিত ওই ফ্ল্যাটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরবিপ্রবি) প্রায় ৩০ জন শিক্ষার্থী বসবাস করেন।

ফ্ল্যাটে তালা দেয়ার বিষয়টি স্বীকার করে মালিক জানিয়েছেন, তিনি বাড়ি ভাড়ার জন্য নয়, শিক্ষার্থীরা দীর্ঘদিন এখানে না থাকার কারণে নিরাপত্তার জন্য তালা দিয়েছেন। এদিকে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের বাড়িভাড়া সংক্রান্ত জটিলতা নীরসনে কাজ করছে বলে জানা গেছে।

ওই ভবনে বসবাসরত বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘আমরা যারা এখানে থাকি তাদের মধ্যে অনেকেই টিউশন করিয়ে পড়ালেখার খরচ বহন করে। বর্তমানে সকলের টিউশন বন্ধ থাকায় এবং করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে পরিবারের সদস্যদেরও আয় না থাকায় আমরা কেউই বাড়িভাড়া দিতে পারিনি। আর বাড়িওয়ালা আমাদের অবস্থা বিবেচনা না করেই ফ্লাটগুলোতে তালা দিয়েছেন এবং বলেছেন সম্পূর্ণ ভাড়া না দিলে তালা খুলবেননা।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত বাড়িওয়ালা তালা দেয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, ‘আমি তাদের ফ্ল্যাটে তালা দিয়েছি এটা সত্যি কিন্তু বাড়িভাড়ার জন্য তালা দেইনি। তারা দীর্ঘদিন যাবৎ এখানে নেই এবং যে তালাগুলো দিয়ে গেছে সেগুলো খুব ছোটো, সহজেই ভেঙে ফেলা যায় তাই বাড়ির মালিক হিসেবে তাদের মালামাল সুরক্ষিত রাখতে তুলনামূলক বড় তালা দিয়েছি।’

শিক্ষার্থীদের আর্থিক সমস্যা বিবেচনায় ভাড়া মওকুফ করা হবে কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘মানবিক দিকটা অবশ্যই বিবেচনা করবো এবং আমি ইতিমধ্যে ৪০% ভাড়া মওকুফ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. রাজিউর রহমান বলেন, ‘আমরা বাড়িভাড়া সংক্রান্ত সমস্যা নিরসনের চেষ্টা করছি। শিক্ষার্থীরা বাড়ি থেকে ফেরার পর যদি বাড়িভাড়া সংক্রান্ত সমস্যায় পড়ে বা হুমকির সম্মুখীন হয় আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।’


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ