১৫ জানুয়ারি ২০২০, ১৯:৩২

যবিপ্রবি উপাচার্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ

উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন  © টিডিসি ফটো

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি বিকৃতির ঘটনায় যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (যবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন ও রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী আহসান হাবিবসহ দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

আজ বুধবার (১৫ জানুয়ারি) এক রিট আবেদনের শুনানিতে জারি করা রুল নিষ্পত্তি করে হাইকোর্টের বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ নির্দেশ দেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এম কে রহমান এবং রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার এ বি এম আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল সাইফুল ইসলাম।

এর আগে ২০১৮ সালের ডেস্ক ক্যালেন্ডারে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবিতে এবং ২০১৯ সালের ডেস্ক ক্যালেন্ডারে জাতির পিতা এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি বিকৃত করার বিষয়ে যবিপ্রবির ভিসি, রেজিস্ট্রার ও জনসংযোগ কর্মকর্তা হাইকোর্টে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করেছিলেন। নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করার পর আদালত তাদের সতর্ক করে বলেছিলেন, ‘অভিযোগ প্রমাণ হলে ছাড় দেয়া হবে না।’

আইনজীবী এম কে রহমান সাংবাদিকদের জানান, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি যে ঘটনাটি ঘটেছে এটিকে আদালত বেআইনি ঘোষণা করেছেন। তদন্ত রিপোর্ট অনুযায়ী এ ঘটনায় যারা দোষী প্রমাণিত হয়েছেন তাদের বিরুদ্ধে সংবিধান ও আইন অনুযায়ী এক মাসের মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহণে মন্ত্রিপরিষদ সচিবকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। আদালত এ আদেশ দিয়ে রুলটি নিষ্পত্তি করে দিয়েছেন।

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যায়ের ক্যালেন্ডারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি বিকৃতির অভিযোগে হাইকোর্টে রিট করেছিলেন যশোর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. আনোয়ার হোসেন বিপুল। ওই রিটের শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট এ বিষয়ে তদন্তের নির্দেশ দেন।

আদালতের নির্দেশের পর মন্ত্রিপরিষদ সচিবের পরামর্শে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. বেলায়েত হোসেন তালুকদারকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়। ওই কমিটি তদন্ত করে গত ১৫ অক্টোবর প্রতিবেদন দাখিল করে। তদন্তে অভিযোগের সত্যতা মিলেছে বলে জানায় তদন্ত কমিটি।