০৭ নভেম্বর ২০১৯, ১৮:৪৭

চুয়েটের ৫২০ আসনে ভর্তি হয়নি কেউ

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ৫২০টি আসন খালি রয়েছে। মেধা তালিকা থেকে বিভিন্ন বিভাগের ৮৬০ আসনের মধ্যে ৫২০টিতে ভর্তি হয়নি কোন শিক্ষার্থী। এছাড়া স্থাপত্য বিভাগ ও সংরক্ষিত আসনে খালি রয়েছে ৩০টি।

মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) পর্যন্ত মেধা তালিকা থেকে ভর্তি হওয়ার সময়সীমা শেষ হয়েছে। কিন্তু সব আসনে মেধা তালিকায় স্থান পাওয়া শিক্ষার্থীরা ভর্তি হয়নি। ফলে ৫২০ টি আসন এখনো খালি রয়েছে। ফলে শূন্য আসন পূরণ করতে বুধবার অপেক্ষমানদের প্রথম তালিকা প্রকাশ করেছে চুয়েট।

গত ১২ অক্টোবর চুয়েটের ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগসমূহ, নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগ এবং স্থাপত্য বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগসমূহ, নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগ উত্তীর্ণদের থেকে ৮৬০ জন এবং স্থাপত্য বিভাগের জন্য ৩০ জনের মেধা তালিকা প্রকাশ করা হয়। কিন্তু মেধা তালিকায় স্থান পাওয়া শিক্ষার্থীরা ভর্তি না হওয়ায় স্থাপত্যের ২৫টি আসনসহ ৫৪৫টি আসন খালি থেকে যায়।

ফলে বুধবার ৫৫০ জনের প্রথম অপেক্ষমান তালিকা প্রকাশ করেছে চুয়েট কর্তৃপক্ষ। এতে ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগসমূহ, নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের জন্য ৫২০ জন, স্থাপত্য বিভাগের জন্য ২৫ জন এবং রাখাইন সম্প্রদায় এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম ও অন্যান্য জেলার নৃ-গোষ্ঠির (উপজাতি) জন্য সংরক্ষিত ৫ জনকে সাক্ষাৎকারের জন্য ডাকা হয়েছে।

পড়ুন: রাবিতে প্রথম আবরার ভর্তি হবেন বুয়েটে

১৩ নভেম্বরের মধ্যে অপেক্ষমানদের ১ম তালিকায় উত্তীর্ণ ভর্তিচ্ছুদের সাক্ষাৎকারের জন্য উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে। অন্যথায় ভর্তি বাতিল বলে গণ্য হবে। সেখান থেকে খালি আসনগুলো পূরণ করা হবে। যদি তাতেও পূরণ না হয় তাহলে অপেক্ষমানদের দ্বিতীয় তালিকা প্রকাশ করা হবে।

এদিকে মেধা তালিকা হতে ভর্তিকৃত ছাত্র-ছাত্রীদের মেধা ও পছন্দক্রম অনুয়ায়ী বিভাগ বন্টন ১১ নভেম্বর প্রকাশ করা হবে।

পড়ুন: দরিদ্র জেলের এক জালেই ৪০ লাখ টাকার মাছ!