আবরারের হত্যাকারীদের নামে শেরেবাংলা হলের টয়লেট!

  © টিডিসি ফটো

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শেরে বাংলা হলের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয়েছে শহীদ আবরার হল। আর আবরারকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় জড়িত ছাত্রলীগ নেতাদের নামে নামকরণ করা হয়েছে হলের টয়লেটগুলো।

তবে বাস্তবে এ ধরণের কোন নামকরণ করেনি বুয়েট কর্তৃপক্ষ। গুগল ম্যাপে শেরেবাংলা হলের নাম দেখানো হচ্ছে শহীদ আবরার হল। আর টয়লেটগুলো হত্যায় জড়িতদের। আজ বুধবার গুগল ম্যাপে গিয়ে এমনটা দেখা যাচ্ছে।

শহীদ আবরার হলের নাম লিখে গুগল ম্যাপে সার্চ করা হলে সরাসরি শেরেবাংলা চলে যাচ্ছে। এছাড়া ম্যাপে টয়লেটগুলোর নামও হত্যাকারীদের নামে দেখানো হচ্ছে। গুগল স্যাটেলাইট ভিউতেও একই ধরণের নাম দেখা যাচ্ছে।

হলের ভেতরে যে টয়লেটগুলোর নাম গুগল ম্যাপেরে লোকেশনে আসছে,   অমিত শাহ পাবলিক টয়লেট, রাসেল পাবলিক টয়লেট, রবিন পাবলিক টয়লেট, অনিক সরকার পাবলিক টয়লেট, কিলার ফুয়াদ পাবলিক টয়লেট ইত্যাদি । অবশ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্য স্থাপনাগুলোয় পরিবর্তন দেখা যায়নি।

ধারণা করা হচ্ছে, আবরার হত্যায় জড়িতদের শাস্তির দাবিতে কেউ গুগল ম্যাপে এ পরিবর্তন নিয়ে এসেছেন। তবে কারা এটি করেছেন, সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি।

৬ অক্টোবর শেরেবাংলা হলে আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করেন বুয়েট ছাত্রলীগের একদল নেতা-কর্মী। আবরার বুয়েটের তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের (১৭তম ব্যাচ) ছাত্র ছিলেন। তিনি থাকতেন বুয়েটের শেরেবাংলা হলের নিচতলায় ১০১১ নম্বর কক্ষে।

ঘটনার দিন তাঁকে ডেকে নিয়ে যাওয়া হয় একই হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে। ওই কক্ষে তাঁকে নির্যাতন করে বুয়েট ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। রাত ৩টার দিকে হল থেকেই তাঁর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

এর পর থেকে শিক্ষার্থীরা আবরার হত্যার ঘটনায় খুনিদের সর্বোচ্চ শাস্তি, বুয়েট ক্যাম্পাসে সাংগঠনিক ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করাসহ ১০ দফা দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন। এ ঘটনায় ২০ জনের নামে চার্জশিট দাখিল করা হতে পারে বলে জানা গেছে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ