সেই শিক্ষকের গোপন কক্ষের খাট নিয়ে বিতর্ক থামছেই না

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (পাবিপ্রবি) ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের সভাপতির কক্ষে গোপন খাস কামরার ঘটনায় বিতর্ক বন্ধই হচ্ছে না। খাটটি সরিয়ে নেওয়া হলেও এর রেশ যেন কাটছেই না।

এর প্রতিবাদে রোববারও বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন করেছেন শিক্ষকদের একটা অংশ। এছাড়া দুই শিক্ষকের শাস্তি দাবি করে বিক্ষোভ করেছেন একদল শিক্ষার্থী।

জানা গেছে, পাবিপ্রবির ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের প্রধানের অফিসকক্ষ–সংলগ্ন ছোট কক্ষে খাট থাকার বিষয়টি শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা দুইভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েছেন। ওই খবরে শিক্ষার্থীরা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠলে গত ২৮ আগস্ট কর্তৃপক্ষ সেখান থেকে খাটটি সরিয়ে নেয়।

তবে শিক্ষার্থীদের এক অংশের অভিযোগ, ওই বিভাগের বর্তমান ও সাবেক দুই প্রধান ওই ছোট কক্ষে ছাত্রীদের নিপীড়ন করেছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ–উপাচার্য আনোয়ারুল ইসলাম বলেছেন, বিষয়টি নিয়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বিভক্ত হয়ে পড়েছেন। এটা সত্যিই কষ্টের।

পড়ুন: এবার বিশ্ববিদ্যালয়ে খাস কামরা, বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা

গত ২৭ আগস্ট বিভাগের সভাপতির কক্ষে গোপন খাস কামরার সন্ধান পেয়ে বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা। ওই বিভাগের বর্তমান ও সাবেক সভাপতির বিরুদ্ধে নারী শিক্ষার্থীদের যৌন নির্যাতনের অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীরা।

পরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ওই কামরার খাটসহ আসবাবপত্র বের করে দেয়। ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে অভিযুক্ত শিক্ষকদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি শিক্ষার্থীদের।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ