বৃক্ষরোপণে বশেমুরবিপ্রবি উপাচার্যের অনন্য উদ্যোগ

  © টিডিসি ফটো

সমগ্র বিশ্বেই বৃক্ষের সংখ্যা ক্রমহ্রাসমান। যার কারণে বৈশ্বিক উষ্ণতা ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এমতাবস্থায় পরিবেশবিদরা পরিবেশ রক্ষায় সবথেকে বেশি গুরুত্বারোপ করছেন বৃক্ষরোপণের উপর। পরিবেশ রক্ষায় বৃক্ষের অনন্য অবদান উপলব্ধি করে গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরবিপ্রবি) উপাচার্য প্রফেসর ড. খোন্দকার নাসিরউদ্দিন প্রায় পাঁচ বছর যাবৎ বৃক্ষরোপণে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে চলেছেন। তার প্রচেষ্টায় বশেমুরবিপ্রবির বালুময় ক্যাম্পাস পরিণত হয়েছে দেশের অন্যতম সবুজ ক্যাম্পাসে।

সম্প্রতি এই বৃক্ষপ্রেমী উপাচার্য বৃক্ষরোপণে নতুন এক উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কর্মকর্তা ইমরুল হাসানের দেয়া তথ্যানুসারে উপাচার্যের উদ্যোগে এ বছর প্রায় ৮০ হাজার আমের বীজ সংগ্রহ করে তা থেকে চারা উৎপন্ন করা হয়েছে। এসকল আমের চারা পরবর্তীতে উন্নত জাতের আমের চারার সাথে সংমিশ্রণের মাধ্যমে সুস্বাদু আমের জাত তৈরি করা হবে এবং তা বিনামূল্যে গোপালগঞ্জের বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের মাঝে বিতরণ করা হবে। এতে একদিকে যেমন শিক্ষার্থীরা বৃক্ষরোপণে উৎসাহী হবে অপরদিকে দেশে আমের উৎপাদন ও বৃদ্ধি পাবে।

উপাচার্যের এমন উদ্যোগে খুশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও। আইন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী রবিউল আউয়াল জানান, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ে পর্যাপ্ত পরিমাণে উদ্ভিদ থাকায় ক্যাম্পাসে প্রবেশ করলেই একটি প্রশান্তি অনুভব করি। আমার মনে হয় ভিসি স্যারের এ ধরণের উদ্যোগ বাংলাদেশের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদেরও অনুকরণ করা উচিত। এতে একদিকে যেমন বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর সৌন্দর্য বৃদ্ধি পাবে অপরদিকে পরিবেশের ভারসাম্যও রক্ষা হবে।’

উল্লেখ্য, বিশ্ববিদ্যালয়ের দেয়া তথ্যানুসারে বশেমুরবিপ্রবিতে বর্তমানে বিভিন্ন বিরল প্রজাতির উদ্ভিদসহ প্রায় ২৫ হাজার উদ্ভিদ রয়েছে। বৃক্ষরোপণে এই অনন্য অবদানের জন্য ২০১৭ সালে বশেমুরবিপ্রবি উপাচার্য প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক বৃক্ষরোপণে জাতীয় পুরষ্কারে ভূষিত হয়েছিলেন।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ