পুরনো ও ভুল তথ্যেই চলছে হাবিপ্রবি ডিজিটাল ডায়েরি

পুরনো তথ্যেই চলছে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিজিটাল নামক ডায়েরি। তথ্য প্রযুক্তির যুগের সাথে তাল মিলাতে তথ্যকে সহজলভ্য ও আধুনিকায়ন করতে ২০১৮ সালের ৫ এপ্রিল গুগল প্লে স্টোরে লঞ্চ করা হয় এবং ৫ এপ্রিল আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয় এইচএসটিইউ ডায়েরি।

গুগল প্লে স্টোরে গিয়ে দেখা যায় ডায়েরিটি সর্বশেষ বৃহস্পতিবার (১৩ই জুন ) আপডেট করা হয়েছে। কিন্তু আপডেটকৃত ভার্সনেও রয়েছে অগণিত ভুল। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন পদে ও শিক্ষক-কর্মকর্তাদের পদোন্নতিতে পরিবর্তন হলেও আপডেটকৃত ভার্সনে সেগুলোর কোন পরিবর্তন পাওয়া যায়নি। রেজিস্ট্রার পদে প্রফেসর ডা. মো. ফজলুল হক অধিষ্ঠিত হলেও এখনো ডায়েরিতে সাবেক রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. মো. সফিউল আলমের নাম রয়েছে। একইভাবে পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ও স্টাডিজ অনুষদের ডিন হিসেবে প্রফেসর ড. ফাহিমা খানম নিযুক্ত হলে এখনো রয়েছে চাকরি থেকে অবসরপ্রাপ্ত প্রফেসর মো. মিজানুর রহমানের নাম। এরকম ভাবে ছাত্র উপদেষ্টা, আইআরটি, প্রক্টর শাখায় রয়েছে নানা গরমিল। এছাড়া বিভিন্ন অনুষদের অনেক শিক্ষক প্রভাষক থেকে সহকারী, সহকারী থেকে সহযোগী এবং সহযোগী থেকে অধ্যাপক পদে পদন্নোতি প্রাপ্ত হলেও ডায়রীর আপডেট ভার্সনে পুরোনো তথ্যই বিদ্যমান। নাম ডিজিটাল হলেও সঠিক তথ্যের জন্য এখনো এনালগ পদ্ধতিই অনুসরণ করা লাগছে। উপরন্তু এসব ভুলেভরা তথ্যের জন্য বিভ্রান্ত হচ্ছেন অনেকেই।

সম্প্রতি একটি হলের দু’দিন ধরে পানি না থাকায় ওই হলের অনেক শিক্ষার্থী সহকারী হল সুপার ড. মো.আবু সাঈদকে ফোন করেন। কিন্ত সহকারী হল সুপার ড. মো. আবু সাঈদকে উক্ত পদ থেকে অনেক আগেই অব্যাহতি দিয়ে সহকারী প্রক্টরের দায়িত্ব দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম। এতদসত্ত্বেও শিক্ষার্থীরা তাকে ফোন দিতে থাকলে তিনি ফোনে এবং ফেসবুক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে বিষয়টি অবহিত করার চেষ্টা করেন ।

ডায়েরি তথ্য আপডেটের ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয় আইটি সেলের সমন্বয়ক সহযোগী অধ্যাপক মো. মেহেদী ইসলাম জানান, আমরা এখনো সব তথ্য হাতে পাইনি । তথ্যগুলো হাতে আসলে এটি ডে বাই ডে আপডেট করা হবে ।

এপস নির্মাতা ও আইটি সেলের সহকারী কম্পিউটার প্রোগ্রামার মো রাশেদুল ইসলাম জানান , গতকাল এক বন্ধুর কাছে কম্পিউটার ধার করে নিয়ে এপসটি আপডেট করা হয়েছে। ইতোপূর্বে যাদের ফোনে এপসটি ইনস্টল করা আছে ,সেটি আনস্টল করে নতুন করে ইন্সটল করলে উপরোক্ত সমস্যাটি থাকবে না। সম্ভবত কোডিংয়ের কোন সমস্যা হয়ে থাকতে পারে যে কারনে ইন্সটল অবস্থায় আপডেট করলে তথ্য আপডেট হচ্ছে না। আগামী রবিবার অফিসে গিয়ে ঠিক করে দিবো।

তিনি আরও বলেন ,আমাদের আইটি সেলে ভালো মানের কম্পিউটার না থাকায় কাজ গুলো করতে একটু সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। আইটির কাজের জন্য আমরা প্রশাসনকে কয়েকটি কম্পিউটারের চাহিদাপত্র দিয়েছি। চাহিদাগুলো পুরণ হলে সময় মতোই তথ্য আপডেট করা যাবে। ফলে আর এরকম তথ্য বিভ্রান্তি ঘটবে না বলে তিনি আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।

অন্যদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসিই বিভাগের ১৫তম ব্যাচের শিক্ষার্থী মো নয়ন হোসেন এচএসটিইউ বাস শিডিউল নামে একটি এপস তৈরি। এপসটির মাধ্যমে কোন গাড়ি কখন যাবে তা জানা যাবে। এপসটি গুগল প্লে স্টোরে পাওয়া যাচ্ছে।


মন্তব্য