অনুমতি ছাড়া অনুপস্থিত থাকলে সরকারি কর্মচারীর বেতন কাটা যাবে

  © ফাইল ফটো

কোনো সরকারি কর্মচারী কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া নিজ কাজে অনুপস্থিত থাকতে পারবেন না। এই বিধান লঙ্ঘন করলে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্মচারীর প্রতিদিনের অনুপস্থিতির জন্য এক দিনের মূল বেতনের সমপরিমাণ অর্থ কাটা যাবে। এমনকি বিলম্বে অফিসে আসলেও বেতন কর্তনের বিধান চালু করা হচ্ছে।

এমন বিধান অন্তর্ভুক্ত করে রেখে ‘সরকারি কর্মচারী (নিয়মিত উপস্থিতি) বিধিমালা ২০১৯ চূড়ান্ত করেছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে দেয়া বিধিমালা থেকে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

বিধিমালার এই নতুন সংযোজন অনুযায়ী, কোনো সরকারি কর্মচারী অফিস চলাকালীন কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া অফিস ত্যাগ করতে পারবেন না। অবশ্য জরুরি প্রয়োজন হলে সহকর্মীকে জানিয়ে অফিস ত্যাগ করা যাবে। তবে তার কারণ ও সময় রেজিস্ট্রারে লিপিবদ্ধ করতে হবে। এছাড়া যুক্তি সংগত কারণ ছাড়া বিলম্বে অফিসে আসা যাবে না। দুই দিন বিলম্বে অফিসে আসলে ওই কর্মচারীর একদিনের মূল বেতনের সমপরিমাণ অর্থ কেটে রাখা যাবে। তবে এজন্য কারণ দর্শানোর সুযোগ দেওয়া হবে।

বিধিমালা অনুযায়ী, ৩০ দিনের মধ্যে এই ধরনের অপরাধ একাধিকবার করলে কর্তৃপক্ষ ওই কর্মচারীর সর্বোচ্চ সাত দিনের মূল বেতনের সমপরিমাণ অর্থ কাটতে পারবে। মাসিক বেতন থেকে দণ্ডের অর্থ আদায় করা হবে। তবে এসব বিষয়ে পুনর্বিবেচনার আবেদনের সুযোগ রাখা হয়েছে এই বিধিমালায়।

বিধিমালার বিষয়ে জানতে চাইলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা বলেন, এ ধরনের ব্যবস্থা আগেও ছিল। তবে, তা মান্য করার বালাই ছিলো না। আবার সাময়িক শাসনের সময় করা এসব বিষয় লোপ করার সিদ্ধান্ত রয়েছে। তারই আলোকে নতুন করে এই বিধিমালায় এ বিষয়গুলো অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ