লাফ দিয়ে বাড়ল সিগারেটের দাম

  © প্রতিকী ছবি

সিগারেটসহ তামাক জাতীয় পণ্যের উৎপাদন ও বিক্রি নিষিদ্ধ হচ্ছে, এমন খবরে লাফ দিয়ে বাড়ল সিগারেটের দাম। এক প্যাকেট সিগারেটের দাম ১০ থেকে শুরু করে ৫০ টাকা পর্যন্ত বেড়ে গেছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, প্রতি প্যাকেট গোল্ডলিফ সিগারেট ২১০ টাকা হলেও হুট করে বেড়ে ২৪০ টাকা হয়ে গেছে। সে হিসেবে প্রতি শলাকার দাম প্রায় ১২ টাকা। পাইকারি ও খুচরা সব পর্যায়েই বেড়েছে দাম।

বিক্রেতারা জানিয়েছেন, এতদিন স্টার সিগারেট প্রতি শলাকা সাত টাকা বিক্রি হলেও আজ বিক্রি করছেন ৯ টাকায়। পাশাপাশি সব ধরনের সিগারেটে দুই থেকে তিন টাকা দাম বেড়েছে।

রাজধানী বাড্ডা এলাকার বুলবুল আহমেদ বলেন, গোল্ডলিফ সিগারেট গতকাল এক প্যাকেট কেনেন ২১০ টাকায়। কিন্তু আজ দাম বেড়ে হয়েছে ২৪০ টাকা। বিক্রেতারা জানান, পাইকারিতে দাম বেড়েছে,  এজন্য তারাও দাম বাড়িয়েছেন।

জানা গেছে, সিগারেটসহ তামাকজাত পণ্যের দাম বাড়ে মঙ্গলবার রাত থেকেই। করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় তামাকজাত পণ্য উৎপাদন, সরবরাহ, বিপণন এবং ক্রয়-বিক্রয় কার্যক্রম সাময়িকভাবে বন্ধ চেয়ে শিল্প মন্ত্রণালয়ে চিঠি দেয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ।

এরপরই সিগারেটবিক্রি বন্ধ হয়ে যাচ্ছে, এমন খবরে ধূমপায়ীদের সিগারেট মজুদের হিড়িক লাগে। সে খবর এরই মধ্যে বদলে গেছে। কারণ শিল্প মন্ত্রণালয় আজ বুধবার বলেছে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে তামাকশিল্প চালু রাখা যুক্তিসঙ্গত বলে মন্ত্রণালয় মনে করে। ফলে সিগারেটসহ তামাক পণ্য  বিক্রি বন্ধ হচ্ছে না।

অবশ্য দুপুরে সচিবালয়ে শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন বলেন, করোনার কারণে তামাকজাত পণ্যের উৎপাদন, সরবরাহ, বিপণন ও বিতরণ সাময়িকভাবে বন্ধের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ