ঢাকায় নতুন অফিস চালু করেছে বৈশ্বিক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ওরাকল

  © সংগৃহীত

বৈশ্বিক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ওরাকল বাংলাদেশে নতুন অফিস চালু করেছে। বৃহস্পতিবার (২৩ জানুয়ারি) প্রতিষ্ঠানটির ২০ বছরপূর্তি উপলক্ষ্যে রাজধানীর এক অভিজাত হোটেলে বাংলাদেশে কার্যক্রম পরিচালনার এ ঘোষণা দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল, এফসিএ, এমপি বলেন, “গত অর্থবছরে ৮ দশমিক ১৫ শতাংশ জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে বাংলাদেশ যা অভাবনীয় এবং প্রশান্ত-মহাসাগরীয় অঞ্চলে সর্বোচ্চ। দেশব্যাপী বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে আধুনিক প্রযুক্তিতে রুপান্তর করে প্রবৃদ্ধি অর্জন এবং নতুন নতুন উদ্ভাবনী উপায়ে গ্রাহকদের সেবা দিতে সহযোগিতা করায় ওরাকল প্রসংসার দাবীদার।”

প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, এমপি বলেন, “ওরাকলের এই মাইলফলক অর্জনে আমি তাদের আভিনন্দন জানাই। বাংলাদেশের উন্নয়ন পরিকল্পনা বাস্তবায়নে তারা প্রযুক্তিগত অংশীদার হিসাবে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখছে। ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি ডিজিটাল দেশে রূপান্তরিত করতে সরকার প্রতিশ্রæতিবদ্ধ এবং এই লক্ষ্য অর্জনে আমরা ওরাকলের মত কর্পোরেশনের সাথে কাজ করতে আগ্রহী।”

দেশের সরকারি ও বেসরকারি খাতের প্রতিষ্ঠানগুলোতে প্রযুক্তি সেবা প্রদান করে ওরাকল প্রতিষ্ঠানটি।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামাল, এফসিএ, এমপি এবং গেস্ট অব অনার হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্মেদ পলক, এমপি। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল আর. মিলার, ওরাকল আসিয়ানের (দ্য এসোসিয়েশন অব সাউথইস্ট এশিয়ান নেশনস) রিজিওনাল ম্যানেজিং ডিরেক্টর শেরিয়ান ভার্গেস, সাউথ এশিয়া গ্রোথ ইকোনোমিক্সের ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং ওরাকল ক্লাউড প্ল্যাটফর্ম গ্রুপের ভাইস প্রেসিডেন্ট অমিত সাক্সেনা, ওরাকল বাংলাদেশের ম্যানেজিং ডিরেক্টর রুবাবা দৌলাসহ কোম্পানিটির গ্রাহক ও অংশীদারগণ।

ব্যবসায়িক কার্যক্রমে এগিয়ে থাকতে ওরাকল ক্লাউডের ওপরই আস্থা বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠানগুলোর:

বিশ্বজুড়ে ছোট-বড় সব ধরণের প্রতিষ্ঠানের জন্য বিভিন্ন ধরণের বিজনেস সফটওয়্যার সরবরাহ করে ওরাকল। বাংলাদেশে ওরাকল ক্লাউড সল্যুশনসের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক, অনন্ত গ্রæপ, বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল, বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন, বিকাশ, ব্র্যাক ব্যাংক, ডিবিএল গ্রæপ, ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর, দুলাল ব্রাদার্স, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, ন্যাশনাল পলিমার, পারটেক্স স্টার গ্রুপ, ইউনিয়ন গ্রæপ, প্যাসিফিক জিন্সসসহ আরো বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ওরাকলের সেবা গ্রহণ করছে। প্রতিষ্ঠানগুলো মেধা ব্যবস্থাপনা, গ্রাহকদের আরো মানসম্মত সেবা দেয়া, দ্রæত নতুন নতুন সেবা চালু করা বা খরচ কমানোর মতো দিকগুলো নিশ্চিত করতে ওরাকল ক্লাউড ব্যবহার করে থাকে।

ওরাকল আশিয়ানের রিজিওনাল ম্যানেজিং ডিরেক্টর শেরিয়ান ভার্গেস বলেন, “আশিয়ান অঞ্চলের অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশে আমাদের গ্রাহকরা ব্যবসায়িক উদ্ভাবন ও ডিজিটালাইজেশনে অনেক এগিয়ে আছে।” তিনি বলেন, “ওরাকল ইআরপি ক্লাউড ব্যবহার করে ডিজিটাল ট্র্যান্সফরমেশনের মাধ্যমে ব্যবসায় আরো গতি পেয়েছে ব্র্যাক ব্যাংক, অন্যদিকে প্রতিভা অন্বেষণ এবং ব্যবসা পরিচালনায় নতুনত্বের সুবিধা পেয়েছে ডিবিএল গ্রæপ- ঠিক এইভাবেই নতুন ও সম্ভবানাময় প্রযুক্তি কাজে লাগানোর ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকায় রয়েছেন বাংলাদেশের গ্রাহকরা। বাংলাদেশের এ ধরণের সুযোগ কাজে লাগানোর এখনই সময়।”

ওরাকল বাংলাদেশের ম্যানেজিং ডিরেক্টর রুবাবা দৌলা বলেন, “দেশে ৫০টিরও বেশি উল্লেখযোগ্য পার্টনার নিয়ে আমরা এই অঞ্চলে আমাদের গ্রাহকদের ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশনে সহযোগিতা করে আসছি। বাংলাদেশে নতুন কার্যালয় স্থাপন এদেশের প্রতি আমাদের প্রতিশ্রæতিরই প্রতিফলন। সরকারি ও বেসরকারি উভয় খাতের প্রতিষ্ঠানের জন্য ওরাকল ক্লাউডের ব্যবহার ক্রমেই বেড়ে চলেছে। আমরা আমাদের বিস্তৃত নেটওয়ার্ক ও আন্তর্জাতিক মানের প্রযুক্তির মাধ্যমে বাংলাদেশে ডিজিটাল এজেন্ডা বাস্তবায়নের অন্যতম সহযোগী হতে চাই।”

ওরাকল সম্পর্কে:
ওরাকল অটোনোমাস ডাটাবেস’এর সেলস, সার্ভিস, মার্কেটিং, হিউম্যান রিসোর্স, ফাইনান্স, সাপ্লাই চেইন এবং ম্যানুফ্যাকচারিং সেই সাথে হাইলি অটোমেটেড এবং সিকিউর জেনারেশনের জন্য ইন্টিগ্রেটেড অ্যাপলিকেশনের কমপ্লিট স্যুট অফার করে থাকে ওরাকল ক্লাউড।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ