এখন থেকে ডেটিং হবে ফেসবুকে

অনলাইনে পরস্পরকে পছন্দ করে তাঁর সঙ্গে সম্পর্ক তৈরির অনেক নজির রয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের বদৌলতে পছন্দের মানুষের সাথে চ্যাটিং, ডেটিং অতপর শুভ পরিণয় ঘটেছে তার উদাহরণও কম নয়। এবার মানুষের পছন্দের এ বিষয়টিকেই কাজে লাগাতে চাইছে ফেসবুক। যুক্তরাষ্ট্রে গতকাল বৃহস্পতিবার শুরু করে দিয়েছে ফেসবুকের ডেটিং সেবা বা “ম্যাচমেকিং ফাংশন”।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ তাদের এক ব্লগ পোস্টে জানিয়েছে, ‘ফেসবুক ডেটিং’ নামের এই সুবিধা ব্যবহারকারীকে অর্থপূর্ণ সম্পর্ক তৈরির সক্ষমতা দেবে। এতে দুজন ব্যবহারকারীর মধ্যকার যেসব বিষয়ে মিল ও আগ্রহ রয়েছে, সেগুলো মিলিয়ে দেখানো হবে।

এর মধ্য দিয়ে ম্যাচ ডটকমের সাইটগুলোর সঙ্গে সরাসরি প্রতিযোগিতায় নেমে পড়ল বিশ্বের শীর্ষ এ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটি।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বলছে, ডেটিং প্রোফাইল তৈরির সময় এমনভাবে তা তুলে ধরা হবে, যাতে প্রকৃত ব্যক্তিকেই ফুটিয়ে তোলা যায়। এতে তিনি ইনস্টাগ্রাম অনুসারীদের গোপন ‘সিক্রেট ক্রাশ’ তালিকা দেখাতে পারবেন। এ ছাড়া এতে ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম স্টোরিজও যুক্ত করা যাবে।

ফেসবুকের এ সেবা যথেষ্ট ‘নিরাপদ, প্রকৃত ও বাছাই করা’ হবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এতে ব্যবহারকারী চাইলে অন্য অ্যাকাউন্টকে ব্লক করা বা তার বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে পারবেন। এ ছাড়া ব্যবহারকারী একে অপরকে ছবি, লিংক, অর্থ আদান–প্রদান বা ভিডিও বার্তা পাঠাতে পারবেন না। তবে চাইলে বিশ্বস্ত কাউকে ফেসবুক মেসেঞ্জারে মাধ্যমে ডেটিংয়ের তারিখ ও জায়গার কথা বলতে পারবেন।

কোনো ব্যক্তি যদি কারও প্রোফাইল দেখে আগ্রহী হন, তবে তিনি লাইক বাটনে ক্লিক করে বা প্রোফাইলে মন্তব্য করে জানাতে পারবেন। যদি পরস্পরের সঙ্গে পছন্দের বিষয়গুলো না মেলে, তবে ব্যবহারকারী তা অন্যের কাছে পাঠিয়ে দিতে পারবেন।

তবে এ ক্ষেত্রে বিবেচনায় আনা হয়েছে বয়সের বিষয়টিও। সব বয়সীদের জন্য সেবাটি উন্মুক্ত নয়। কেবল ১৮ বছরের বেশি বয়সীদের ক্ষেত্রে পৃথক ডেটিং প্রোফাইল খোলার সুযোগ থাকবে। যাঁরা এ সেবার সঙ্গে যুক্ত হবেন, তখন অন্যদের সঙ্গে যুক্ত হতে ফেসবুক পরামর্শ দেবে।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের মে মাসে ফেসবুকের বার্ষিক ডেভেলপার সম্মেলন এফ–৮ আয়োজনে ডেটিং সেবার ঘোষণা দিয়েছিল ফেসবুক। এবার তা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে নেমেছে প্রতিষ্ঠানটি।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ