করোনা সংকট

পিতৃতান্ত্রিক সমাজে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে নারী ও কিশোরীরা: ঢাবি উপাচার্য

  © টিডিসি ফটো

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস-২০২০ পালন এবং স্টেট অব ওয়াল্ড পপুলেশন-২০২০ এর বার্ষিক প্রতিবেদন প্রকাশে উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) পপুলেশন সায়েন্সেস বিভাগ এবং জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিল (ইউএনএফপিএ) বাংলাদেশ যৌথভাবে এক ওয়েবিনার আয়োজন করেছে। আজ শনিবার (১১ জুলাই) অনুষ্ঠিত এ ওয়েবিনার উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আখতারুজ্জামান।

এসময় তিনি বলেন, কোভিড-১৯ দ্বারা সৃষ্ট বিভিন্ন বৃহত্তর ঝুঁকি রয়েছে। তারমধ্যে প্রাক বিদ্যমান বৈষম্য আরও গভীরতর হওয়া, সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক ব্যবস্থার দুর্বলতা প্রকাশ যেখানে আমাদের নারী ও কিশোরীরা পিতৃতান্ত্রিক সমাজে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে।

তিনি এই পরিস্থিতি মোকাবেলায় এবং নারী ও কিশোরীদের স্বাস্থ্য ও অধিকার সম্পর্কিত প্রয়োজনীয়তা নিশ্চিত করার জন্য বিভিন্ন পর্যায়ের সম্মিলিত ও সর্বাত্মক প্রচেষ্টার প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দিয়েছেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাংসদ ফজিলাতুন নেছা ইন্দিরা করোনভাইরাসের এই সংকটকালীন সময়ে নারী ও কিশোরীদের রক্ষা ও সুরক্ষার জন্য প্রধান অগ্রাধিকার হিসাবে মানবাধিকারকে ধরে রাখার প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে আলোকপাত করেন। এ প্রসঙ্গে তিনি কোভিড-১৯ চলাকালীন সময়ে নারী ও কিশোরীদের প্রতিরোধমূলক এবং সুরক্ষা সংক্রান্ত প্রয়োজনের যথাযথ মূল্যায়নের সাথে বিস্তৃত ও বহুমাত্রিক কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ণ ও বাস্তবায়নের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

ওয়েবিনারের বিশেষ অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন ঢাবির সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম, জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিল (ইউএনএফপিএ) এর কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ ড. অসা টর্কেলসন।

ওয়েবিনারে দুটি মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয়। “Defying the harmful practices that undermine equality in women and girls in pandemic and shadow pandemic in Bangladesh” শীর্ষক প্রথম প্রবন্ধটি উপস্থাপন করেন ঢাবির সায়েন্সেস বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মঈনুল ইসলাম। প্রবন্ধে তিনি বাল্যবিবাহ, লিঙ্গ ভিত্তিক নিপীড়ন, জন্ম পূর্ববর্তী লিঙ্গ নির্ধারণ, এবং নারী ও মেয়েদের উপর কোভিড-১৯ এর প্রভাব সম্পর্কে আলোচনা করেন। 

“How to safeguard the health of women and girls during COVID-19” শীর্ষক দ্বিতীয় প্রবন্ধটি উপস্থাপন করেন ঢাবির সায়েন্সেস বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ বিললাল হোসেন। এতে তিনি বর্তমান কোভিড-১৯ সময়ে যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য ও অধিকারের পরিস্থিতি, যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য সেবার নিম্নগামী ব্যবহার ও তার কারণ, এবং কোভিড সময়কালীন মেয়ে ও নারীদের যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য ও অধিকারের সুরক্ষার লক্ষ্যে বিভিন্ন সম্ভাব্য কার্যক্রমের দিকনির্দেশনা প্রদান করেন। এ

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস-২০২০ পালনের অংশ হিসাবে আয়োজিত রচনা প্রতিযোগিতার ৩ জন বিজয়ীর নাম ওয়েবিনারের শেষ পর্যায়ে ঘোষণা করা হয়। 


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ