করোনায় আক্রান্ত না হলে সার্জিক্যাল মাস্ক নয়— ঢাবি গবেষক দলের পরামর্শ

  © প্রতীকী ছবি

করোনাভাইরাসের আতঙ্কের মধ্যে সর্বসাধারণের সার্জিক্যাল অথবা মেডিকেল মাস্ক ব্যবহারের প্রয়োজন নেই বলে জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞ শিক্ষক ও গবেষকরা। তারা বলছেন, যদি কেউ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয় তাহলেই এ ধরণের মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। আর যারা আক্রান্ত না তাদের ঘরে দেশজ পদ্ধতিতে কাপড়ের তৈরি মাস্ক ব্যবহার করতে পারবেন।

রবিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় করোনাভাইরাস রেসপন্স টেকনিক্যাল কমিটির এক জরুরি সভায় এ পরামর্শ দেওয়া হয়। উপাচার্য ভবনে অনুষ্ঠিত এ সভায় সভাপতিত্ব করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। সভায় অধ্যাপক ড. শরীফ আখতারুজ্জামান, অধ্যাপক ড. এম এ মালেক, অধ্যাপক ড. মামুন আহমেদ ও অধ্যাপক ডা. শাহরিয়ার নবী উপস্থিত ছিলেন।

সভায় করোনাভাইরাস সংক্রমণের সার্বিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করা হয় এবং দেশে চলমান সংকট মোকাবেলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞ শিক্ষক ও গবেষকগণকে সরকারের তথা জাতির চাহিদা মোতাবেক সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে প্রশিক্ষণ, প্রযুক্তিগত ও কারিগরি সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে সর্বাত্মক প্রস্তুত থাকার উপর গুরুত্বারোপ করা হয়।

আজ সোমবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সাম্প্রতিক সময়ে জনমনে ‘ফেস মাস্ক’ ব্যবহার সম্পর্কে লক্ষণীয় বিভ্রান্তি নিরসনের বিষয়েও সভায় আলোচনা হয়। ‘যারা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত নন, অথবা কোন উপসর্গ নেই তাদের সার্জিক্যাল অথবা মেডিকেল মাস্ক ব্যবহারের প্রয়োজন নেই। তারা ঘরে দেশজ পদ্ধতিতে কাপড়ের তৈরি মাস্ক ব্যবহার করবেন।’— সভায় পরামর্শ প্রদান করা হয়।

‘চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যসেবাকর্মী যারা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সেবাপ্রদান করছেন, অথবা যাদের করোনাভাইরাসের উপসর্গ রয়েছে, অথবা যারা হাসপাতাল বা ক্লিনিকে দায়িত্ব পালন করছেন তারা মেডিকেল/সার্জিক্যাল মাস্ক ব্যবহার করবেন।’

সভায় আরও জানানো হয়, ঘরে বসে সহজে চিকিৎসাসেবা প্রাপ্তির জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বায়োমেডিকেল ফিজিক্স এন্ড টেকনোলজি বিভাগ টেলিমেডিসিন কার্যক্রম শিগগিরই শুরু করবে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় তথ্য দুয়েক দিনের মধ্যে সবাই জানানো হবে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ