জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

‘হল ছাড়ার নির্দেশ’ প্রত্যাখ্যান করে আন্দোলন স্থগিত

মঙ্গলবার রাতে জাবি উপাচার্যের বাসভবন সংলগ্ন রাস্তায় অবস্থান  © টিডিসি ফটো

ছাত্রলীগের হামলার পর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা এবং আবাসিক শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ দেয় প্রশাসন। তবে উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণের দাবিতে আন্দোলনত শিক্ষার্থীরা এ নির্দেশ প্রত্যাখ্যান করেছেন।

এদিকে, মঙ্গলবার রাত ১০টা থেকে ১টা পর্যন্ত আন্দোলনত শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের বাসভবন সংলগ্ন রাস্তায় অবস্থান নিয়ে নানান স্লোগান দেন। পরে তারা আন্দোলন স্থগিত করে হলে ফিরেছেন। যদিও সিন্ডিকেটের জরুরি এক সভায় মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টার মধ্যে আবাসিক শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশনা ছিল।

জানা যায়, শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলমান থাকবে। আজ বুধবার সকাল দশটায় জাবির শহীদ মিনারে সংহতি সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে সকাল ৯টায় মুরাদ চত্বর থেকে বিক্ষোভ মিছিল করে সমাবেশে যোগ দিবেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার রাতে দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর এর সংগঠক মাহাথির মোহাম্মদ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণের দাবিতে তার বাসভবনের সামনে আন্দোলনকারীদের অবরোধের মাঝে হামলা চালায় শাখা ছাত্রলীগ। এ ঘটনায় শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও সাংবাদিকসহ প্রায় ৩৫ জন আহত হন।

হামলার ঘটনার প্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সিন্ডিকেটের জরুরি এক সভায় অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টার মধ্যে আবাসিক শিক্ষার্থীদের হল ছাড়ার নির্দেশ দেয় প্রশাসন।

আন্দোলনকারীদের সাথে সাধারণ শিক্ষার্থীরাও এই কর্মসূচিতে যোগ দেন। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্পে দুর্নীতির অভিযোগ ওঠার পর প্রায় তিন মাস যাবত উপাচার্যের অপসারণ দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

এই আন্দোলনের অংশ হিসেবে গত ১১দিন বিশ্ববিদ্যালয়ের দুটি প্রশাসনিক ভবন অবরোধ করে রাখেন তারা। সোমবার সন্ধ্যায় একটি মিছিল নিয়ে আন্দোলনকারীরা উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নেন। মিছিলটি পরিবহন চত্বর থেকে শুরু হয়ে ভিসি ভবনের সামনে শেষ হয়।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ