ঢাবির গণরুমে বিছানা নিয়ে ছাত্রলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ

  © টিডিসি ফটো

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হলের গণরুমে ঘুমানোর বিছানা পড়ে যাওয়া নিয়ে ছাত্রলীগের দু’পক্ষের নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

মঙ্গলবার (০৫ নভেম্বর) বিকালে জিয়া হলের ২২৫ নম্বর রুমে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, মাজহার নামে দ্বিতীয় বর্ষের এক শিক্ষার্থী দুপুরে ক্লাসে যাওয়ার সময় আল নাহিয়ান খান জয়ের অনুসারী দ্বিতীয় বর্ষের অপূর্বের বেড থেকে একটি বেডশীট নিচে পড়ে গেলে অপূর্ব মাজহারকে সেটি উপরে তুলে রাখতে বলে। কিন্তু মাজহার সেটি উপরে তুলে না রাখায় দু’জনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে অপূর্ব মাজহারকে মারধর করে।

এ ঘটনা শুনে মাজহারের গ্রুপের ছেলেরা এসে অপূর্বকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। সেখানে অপূর্ব উগ্র আচরণ করলে অপূর্বের গ্রুপ ও তাদের মধ্যে মারামারি শুরু হয়। মারামারির এক পর্যায়ে অপূর্ব ও সিয়াম নামে দ্বিতীয় বর্ষের আরেক শিক্ষার্থী আহত হয়। তারা দু’জনই আল নাহিয়ান খান জয়ের অনুসারী বলে জানা গেছে। আহত অপূর্বকে ঢাকা মেডিকেল কলেজে নিয়ে যাওয়া হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জিয়া হলের একাধিক শিক্ষার্থী বলেন, সন্জিত চন্দ্র দাসের অনুসারী দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মো. মাজহার দুপুরে ক্লাসে যাওয়ার সময় আল নাহিয়ান খান জয়ের অনুসারী দ্বিতীয় বর্ষের অপূর্বের সিট থেকে একটা বেডশিট নিচে পড়ে গেলে অপূর্ব মাজহারকে সেটি উপরে তুলে রাখতে বলে। কিন্তু মাজহার সেটি উপরে তোলে না রাখায় দুজনের মধ্যে প্রথমে কথা কাটাকাটি হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে অপূর্ব মাজহারকে মারধর করে। পরে মজহারের গ্রুপের ছেলেরা অপূর্ব সহ রুমের তিন জনকে মারধর করে।

এ বিষয়ে ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস বলেন , 'বিষয়টা আমি জানিনা তবে খোঁজ নিয়ে দেখছি।'

এ বিষয়ে হলের প্রাধ্যক্ষ প্রফেসর ড. জিয়া রহমানকে ফোন দিলে তার নাম্বার বন্ধ পাওয়া যায়।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ