বৃষ্টি উপেক্ষা করে ঢাবিতে ভর্তিচ্ছুদের পাশে ‘তীর্থ’

শুক্রবার সকাল থেকেই ছিল ঝিরিঝিরি বৃষ্টি। বৃষ্টির কারণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ৩০ হাজার ভর্তিচ্ছুদের সাথে মারাত্মক ভোগান্তিতে পড়েন অভিভাবকরাও। বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে দেশের নানা প্রান্ত থেকে আগত ভর্তিচ্ছুদের বিভিন্ন রাজনৈতিক ও আঞ্চলিক সংগঠনগুলোকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে দেখা যায়। এরমধ্যে অন্যতম ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত যশোর জেলার শার্শা উপজেলার শিক্ষার্থীদের সংগঠন ‘তীর্থ’।

তীর্থের সভাপতি মোঃ হাবিব রায়হান এবং সাধারণ সম্পাদক মোঃ মেহেদি হাসান সুমন বলেন, কার্জন হল, টিএসসি, কলা ভবন এবং ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের সামনে এবং কিছু গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় তীর্থের পক্ষ থেকে হেল্প ডেস্ক বসানো হয়। আমরা ভর্তিচ্ছুদের আসন সনাক্তকরণ, প্রয়োজনীয় মালপত্র রাখা, অভিভাবকদের বিশ্রামের ব্যবস্থা করার মত কাজগুলো করেছি। এর ফলে দূরদূরান্ত থেকে পরীক্ষায় অংশ নিতে আসা শিক্ষার্থীদের কষ্ট কিছুটা লাঘব হয়েছে।

এসময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন স্বাধীনতা ব্যাংকার্স পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহাবুদ্দিন রনি ও তীর্থের উপদেষ্টামণ্ডলী। শাহাবুদ্দিন জানান, তাদের সংগঠনের পক্ষ থেকে যে হেল্প ডেস্ক গুলো বসানো হয়েছে সেখান থেকে ভর্তিচ্ছুরা উপকৃত হয়েছে। অভিভাবকদের ভোগান্তি অনেকাংশে কমেছে।

উপদেষ্টা পরিষদের অন্যতম সদস্য রেজওয়ানুর রহমান বলেন, আমরা প্রতিবছর এই হেল্প ডেস্ক বসিয়ে শিক্ষার্থীদের সহযোগিতা করে আসছি। দেশের দূর-দূরান্ত থেকে আসা পরীক্ষার্থীদের যেন কোন প্রকার অসুবিধায় পড়তে না হয়, সেজন্যই আমাদের এ কার্যক্রম। বর্তমান কমিটির সকল সদস্যই একনিষ্ঠভাবে তাদের দ্বায়িত্বপালন করেছে বলে জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার ২০১৯-২০২০ শিক্ষাবর্ষে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদভুক্ত ‘গ’ ইউনিটের অধীনে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা সকাল ১০টা থেকে শুরু হয়ে ১১টা ৩০মিনিট পর্যন্ত চলে। এ বছর ‘গ’ ইউনিটে ১ হাজার ২৫০ আসনের বিপরীতে আবেদনকারীর সংখ্যা ২৯ হাজার ৫৮ জন।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ