জালিয়াতি করে ভর্তি হলে দাঁতভাঙা জবাব দেবে ঢাবি ছাত্রলীগ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণিতে প্রথম বর্ষে ভর্তির পরীক্ষা ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদভুক্ত গ-ইউনিটের মধ্য দিয়ে আগামীকাল শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে। এই পরীক্ষা সামনে রেখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) শাখা ছাত্রলীগ হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছে, কোনো শিক্ষার্থী জালিয়াতির আশ্রয় নিয়ে ভর্তি হলে ছাত্রলীগ সেটি মেনে নেবে না। এর দাঁতভাঙা জবাব দেবে। এছাড়া প্রশ্নফাঁস ও জালিয়াতি রোধে জিরো টলারেন্স নীতির ঘোষণা করা হয়।

বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রশাসনের প্রতি এ আহ্বান জানান তিনি।

প্রশাসনের প্রতি জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণার আহ্বান জানিয়ে সাদ্দাম হোসেন বলেন, আমরা চাই, বিশ্ববিদ্যালয়ে যে পাঁচটি ইউনিট রয়েছে এটি একটি মেধাভিত্তিক উৎসবের প্রতিযোগিতায় পরিণত হোক। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস যেন তারুণ্যের উৎসবে মুখরিত থাকে। সেটি আমরা দেখতে চাই।

প্রশ্ন ফাঁস ও জালিয়াতি রোধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রতি আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, আপনারা সর্বোচ্চ সজাগ দৃষ্টি রাখবেন। আপনারা ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের জন্য যাবতীয় সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষায় একজন শিক্ষার্থীও যেন কোন অসদুপায় অবলম্বন না করতে পারে, যে কোনো দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করবেন ।

এসময় তিনি দুর্নীতির বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, যদি কোন শিক্ষার্থী জালিয়াতির আশ্রয় নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি হয় আমরা ছাত্রলীগ সেটি মেনে নিব না। আমরা এর দাঁতভাঙ্গা জবাব দিব। একই সাথে অভিভাবকদের অনুরোধ করবো আপনার সন্তান যেন সঠিক উপায়ে সততার সাথে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। কোনরকম জালিয়াতির আশ্রয় যেন না নেয়।

সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আপনাদের কাছে যদি কোনো তথ্য-প্রমাণ থেকে তাকে আপনারা আমাদের জানাবেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে জানাবেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা যেন সুচারুভাবে সম্পন্ন হয়। সেটা আপনারা লক্ষ্য রাখবেন। এজন্য আমরাও দায়বদ্ধ, আপনারাও দায়বদ্ধ।

তিনি আরো বলেন, আমরা দীর্ঘ ২৮ বছর পরে ডাকসু পেয়েছি। এ নির্বাচন করার পেছনে সাংবাদিকদের ভূমিকা রয়েছে। তারা গণমাধ্যমে গণতান্ত্রিক বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য তাদের লেখনীর মাধ্যমে ফুটিয়ে তুলেছিলেন। প্রশ্ন ফাঁসের বিরুদ্ধে আমাদের সাংবাদিকেরা লেখনীর মাধ্যমে চমৎকার ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন।

এসময় ঢাবি ছাত্রলীগ সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাস লিখিত বক্তব্যে বলেন, তারুণ্যের এই উৎসবকে মুখরিত, নান্দনিক ও সুপরিকল্পিত করতে বদ্ধপরিকর বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। বাংলাদেশের সাহসী অভিযাত্রার অবিকল্প সারথি, বঙ্গবন্ধু তনয়া দেশরত্ন শেখ হাসিনার রূপকল্প উপযোগী দক্ষ মানবসম্পদ নির্মাণ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণা বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে প্রতিষ্ঠায় আমাদের লক্ষ্য।

সঞ্জিত বলেন, আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ও সংগ্রামী আমাদের সঞ্জীবনী সুধা, স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়াই আমাদের প্রত্যয়। একইসাথে গণমাধ্যমের বন্ধু, পরীক্ষার্থী, অভিভাবক, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রতি আমাদের উদাত্ত আহ্বান থাকবে ভর্তি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে কেউ যেন কোন ধরনের অসুদপায় অবলম্বন না করে এজন্য সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষই যেন সতর্ক থাকে।

‘সহযোগিতায় সার্বিক রূপকল্পসহ ভালোবাসার ডালি নিয়ে তাদের বরণ করতে প্রস্তুত বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়’ তিনি যোগ করেন।


মন্তব্য