একবার তো ভর্তি পরীক্ষা দিয়েছে, আবার দরকার কী?

যথাযথ নিয়ম মেনেই শিক্ষার্থীদের ভর্তি করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম। তিনি বলেছেন, ইভিনিং প্রোগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নয়, এটা অনুষদের নিজস্ব প্রোগ্রাম। আসন খালি থাকা সাপেক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাস করা শিক্ষার্থীদের সার্কুলারের বাইরেও ভর্তি করানোর সুযোগ রয়েছে। সে ক্ষেত্রে লিখিত পরীক্ষা বাধ্যতামূলক নয়। তাছাড়া শিক্ষার্থীরা একবার লিখিত পরীক্ষা দিয়ে ভর্তি হয়েছে, দ্বিতীয়বার দেয়ার যৌক্তিকতা নেই।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) আট নেতাসহ ছাত্রলীগের ৩৪ নেতার ভর্তির বিষয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন এসব কথা বলেন তিনি।

ডিন বলেন, আমি মনে করি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীরা একবার তো ভর্তি পরীক্ষা দিয়েছে। ইভিনিং প্রোগ্রামে ক্ষেত্রে অতিরিক্ত ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার প্রয়োজন পড়ে না। তাদেরকে মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে যাচাই-বাছাই করে লেখাপড়ার সুযোগ প্রদানের বিষয়টি দেড় বছর আগে অনুমোদিত হয়। কিন্তু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরের ভর্তিচ্ছু আবেদনকারীদের যথাযথ লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে ভর্তি হওয়ার বিধানটি চালু আছে।

এ সময় প্রকাশিত খবরের চিরকুটের বিষয়ে তিনি বলেন, চিরকুট দেখতে কেমন। চিরকুট কি ছোট কাগজ। জিনিসটা কি। এখনতো চিরকুট দেওয়ার দরকার নেই। এখন টেলিফোন আছে মোবাইল আছে। যদি ভিসি স্যার কোনো চিরকুট আমাকে দিয়ে থাকেন, তাহলে তো প্রমাণ থেকে গেল। আমার মনে হয় চিরকুট দিয়ে ভিসি স্যার এমন বোকামি করবেন না।

ভর্তি পরীক্ষার বিষয়ে তিনি আরো বলেন, এখানে কোন প্রকার অনিয়ম করা হয়েছে বা কোন বহিরাগতকে ডাকসু নির্বাচনে আনা হয়েছে বলে যে তথ্য দেয়া হয়েছে তা সঠিক নয়।

শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম বলেন, ছাত্রদের আর্থিক অস্বচ্ছলতা, শারীরিক সমস্যা কিংবা পরিবারের প্রয়োজনে দিনে বেলায় অনেকেই চাকরি করে থাকেন; তাদের বিষয় বিবেচনা করে শুধু মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে ভর্তি করা হয়। অভিযোগ ওঠা ছাত্রদের বেলায় এটাই হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

পড়ুন: রাসুল (স:) নিয়ে অসংলগ্ন উদ্ধৃতির ব্যাখ্যা দিলেন সৌমিত্র শেখর


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ