'ষড়যন্ত্র ও বিরিয়ানী তত্ত্ব' খুঁজবেন না: নুর

সাধারণ শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন যৌক্তিক আন্দোলনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষক এবং প্রশাসনকে 'ষড়যন্ত্র ও বিরিয়ানী তত্ত্ব' না খোঁজার অনুরোধ জানিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নুর বলেন, ছাত্রদের যৌক্তিক আন্দোলনে আপনারা ষড়যন্ত্র কিংবা বিরিয়ানী তত্ত্ব খুঁজবেন না। আপনারা ছাত্রদের অভিভাবক। ছাত্রদের সমস্যা সমাধানে আপনারা তাদের সাথে বসে কথা বলুন।

তিনি বলেন, আমরা দেখি যখনই শিক্ষার্থীরা কোনো দাবী নিয়ে আন্দোলনে নামে তখনই আমাদের শ্রদ্ধেয় শিক্ষকমণ্ডলী কিংবা প্রশাসন ছাত্রদের কথাগুলো না শুনে তাদের একটা ট্যাগ লাগিয়ে দেন।

শুক্রবার সকাল ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কালো দিবস উপলক্ষ্যে ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) মিলনায়তনে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

অালোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন, কালো দিবস পালনের উদ্দেশ্য হলো এ ঘটনা থেকে শিক্ষা গ্রহণ করা। একটি কথা স্পষ্ট করা জরুরী যে ২০-২৩ আগস্টের ঘটনা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও সেনাবাহিনীর কোনো বিতর্ক নয়। এটা সেনাবাহিনীর সাথে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পাল্টাপাল্টি আক্রমনের কোনো ঘটনা নয়। এটা আমাদের ভুল ধারণা। সেনাবাহিনী আমাদের গৌরব, স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের প্রতীক এবং একটি জাতীয় প্রতিষ্ঠান।

তিনি আরো বলেন, ঐ ঘটনার প্রকৃত শিক্ষা হলো সেদিনের নির্যাতিত শিক্ষার্থীদের দাবীগুলো ছিল যৌক্তিক এবং তারা সে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত চেয়েছিলো। তৎকালীন সরকার ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন যদি শিক্ষার্থীদের দাবীগুলো অনুধাবন করে সঠিক ব্যবস্থা গ্রহণ করতো তাহলে এসব অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটতো না। কিন্তু তৎকালীন সরকার সেটা করতে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছিল।

আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মাকসুদ কামাল এবং সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. শিবলী রুবায়েত উল ইসলাম। সভায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ