৯৮৭ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্প পেল শাবিপ্রবি

সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) অধিকতর উন্নয়নের জন্য ৯৮৭ কোটি ৭৯ লাখ টাকার উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে। জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) ২০১৯-২০ অর্থবছরের ১ম সভায় এই অনুমোদন দেয়া হয়। মঙ্গলবার (৯ জুলাই) রাজধানীর শেরেবাংলা নগর জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (এনইসি) সম্মেলন কক্ষে সভাপতিত্ব করেন একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শাবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

‘শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকতর উন্নয়ন (২য় পর্যায়)’ নামে এই প্রকল্পটি পাশ হয়। প্রকল্পটিকে ২০টি অংশে ভাগ করা হয়েছে। এর মধ্যে ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ১০তলা বিশিষ্ট দুটি আবাসিক হল, গ্র্যাজুয়েট ও বিদেশি ছাত্রদের জন্যি একটি ৭ তলা হোস্টেল, শিক্ষক ও কর্মকর্তাদের জন্য ১১তলা চারটি আবাসিক ভবন নির্মাণ, কর্মচারীদের জন্য ১০ তলা আবাসিক একটি ভবন নির্মাণ, ১০ তলা বিশিষ্ট তৃতীয় প্রশাসনিক ভবন নির্মাণ করার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। এতে ২ হাজার ১০০ জন শিক্ষার্থীর আবাসন ব্যবস্থা এবং পাঁচটি আবাসিক ভবন নির্মাণের ফলে প্রায় ২০০টি পরিবারের আবাসন ব্যবস্থা হবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

এছাড়া ১০ তলা বিশিষ্ট চারটি একাডেমিক নির্মাণ, একটি কেন্দ্রীয় ওয়ার্কশপ নির্মাণ, শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল অ্যান্ড কলেজের জন্য ৬তলা ভবন নির্মাণ, ১০তলা বিশিষ্ট একটি ক্লাব ভবন নির্মাণ, আবাসিক হলগুলোর মধ্যে ৪তলা বিশিষ্ট একটি মসজিদ নির্মাণ, কেন্দ্রীয় গ্যারেজ বর্ধিত করণ, প্রধান সড়কের উভয় পাশের ১৫ মিটার স্প্যানের দুটি ব্রিজ নির্মাণ এবং একটি বৈদ্যুতিক সাব-স্টেশন নির্মাণ করার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। প্রকল্পের কাজ ২০২২ সালের জুন মাসে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

সার্বিক বিষয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘এই প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার পরিবেশ পাল্টে যাবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আবাসিক সমস্যা দূর হবে। ক্লাস রুম এবং ল্যাব সমস্যা দূর হবে। ফলে বিশ্ববিদ্যালয়কে আমরা আরও এগিয়ে নিয়ে যেতে পারব। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন।’


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ