শুরু হতে যাচ্ছে ৫ মাসব্যাপী ‘ডিআইইউডিসি বিতর্ক মহাপার্বন’

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বিতর্ক ক্লাব (ডিআইইউডিসি) ও মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের সম্প্রীতি প্রকল্পের সহযোগিতায় বৃহত্তর ঢাকার ৬ জেলায় শুরু হতে হচ্ছে ৭ম জাতীয় আন্তঃজেলা বিতর্ক প্রতিযোগিতা। পাঁচ মাসব্যাপী ‘ডিআইইউডিসি বিতর্ক মহাপার্বন ১৪২৬’ শীর্ষক এই আয়োজনে ঢাকার ৬টি জেলার (ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সিগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, নরসিংদি ও গাজীপুর) বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ ও মাদরাসার শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করবেন।

আগামী ১২ জানুয়ারি তারিখে নরসিংদীতে একটি বিতর্ক কর্মশালার মাধ্যমে শুরু হবে আঞ্চলিক উৎসব। আঞ্চলিক প্রতিযোগিতা শেষে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে অনুষ্ঠিত হবে জাতীয় প্রতিযোগিতা। এতে আঞ্চলিক পর্বের বিজয়ীরাসহ প্রায় এক হাজার শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করবেন।

আজ বুধবার ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ৭১ মিলনায়তনে এক ‘সংবাদ সম্মেলন ও লোগো উন্মোচন’ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এসব তথ্য জানানো হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক প্রধান তথ্য কমিশনার অধ্যাপক ড. গোলাম রহমান এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির কোষাধ্যক্ষ হামিদুল হক খান। এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের প্রকল্প ব্যবস্থাপক শাহজাদী বেগম, ড্যাফোডিল ইন্টান্যাশনাল ইউনিভার্সিটির মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক এ এম এম হামিদুর রহমান, ডিআইইউডিসির মডারেটর অধ্যাপক ড. ফারহানা হেলাল মেহতাব, ডিআইইউডিসির সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক সীমান্ত প্রমুখ। অনুষ্ঠানটিতে সভাপতিত্ব করেন ডিআইইউডিসির সভাপতি ও বিতর্ক মহাপার্বন ১৪২৬’র আহ্বায়ক আল মুকিতুল বারী।

সংবাদ সম্মেলনে আলোচকরা আরো জানান, আঞ্চলিক পর্যায়ে বিতর্ক চর্চার অনুকূল পরিবেশ গড়ে তুলতে যেসব বিশ্ববিদ্যালয়, সমপর্যায়ের কলেজ বা মাদরাসায় বিতর্ক সংগঠন নেই, সেখানে বিতর্ক সংগঠন গড়ে তোলার ব্যপারে কাজ করবে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং ক্লাব। বিতর্ক চর্চার পরিবেশ ধরে রাখতে প্রয়োজনে বিশেষ-বিশেষ জেলাসমূহে গড়ে তোলা হবে জেলা বিতর্ক ফোরাম।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক গোলাম রহমান বলেন, বিতর্ক চর্চার মাধ্যমেই একটি যুক্তিনির্ভর জাতি গড়ে ওঠে। তাই দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে বিতর্কের প্রসার বাড়াতে হবে। বিতর্ক শুধু মানুষকে যুক্তিবাদীই করে তোলে না, তার মধ্যে নেতৃত্ব গুণ তৈরি করে। তিনি আশা প্রকাশ করেন, এই বিতর্ক উৎসবের মধ্য দিয়ে অনেক তরুণ নেতৃত্ব উঠে আসবে।

অধ্যাপক গোলাম রহমান আরো বলেন, সারা পৃথিবীতে যুক্তিহীনভাবে সহিংসতা বাড়ছে। সম্প্রীতি হ্রাস পাচ্ছে। এ অবস্থার উত্তরণে বিতর্কেও বিকল্প নেই। যুক্তি দিয়েই মুক্তির সাধনা করতে হবে। এ সময় তিনি ডিআইইউডিসি ও মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনকে ধন্যবাদ জানান এ রকম একটি উদ্যোগ গ্রহণ করার জন্য।

উল্লেখ্য, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং ক্লাব ২০০৪ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিতর্ক চর্চাকে ছড়িয়ে দিতে নিরলসভাবে কাজ করে চলছে। বর্তমানে ক্লাবটিতে তিন’শ এর অধিক সদস্য রয়েছে। সারাবছর বিতর্কের নানা আয়োজনের পাশাপাশি জাতীয় পর্যায়ের বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় ক্লাবটির অর্জনও বেশ সমৃদ্ধ এবং সুধী মহলে প্রশংসিত।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ