মৌলভীবাজারে ৩ কলেজ ছাত্রী লাঞ্ছিত, ৪ বখাটে আটক

  © টিডিসি ফটো

মৌলভীবাজারে তিন কলেজ ছাত্রীর বাসায় ঢুকে শারীরিকভাবে নির্যাতন ও শ্লীলতাহানির অভিযোগে দায়ের করা মামলায় চার বখাটেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার (১৫ মে) মধ্যরাতে অভিযান চালিয়ে সদর উপজেলার পৃথক এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, মামলার প্রধান আসামি সদর উপজেলার বড়বাড়ি সোনাপুর এলাকার আজিজুর রহমানের ছেলে সাদনান রহমান নাভেদ (২১), একই এলাকার আব্দুল মতিনের ছেলে ফাহাদ আহমদ মুন্না (২৪), আফতাব উদ্দনের ছেলে সায়েম আহমদ (২৩) ও রৌশন মিয়ার ছেলে লোকমান আহমদ (২৩)।

বৃহস্পতিবার (১৬ মে) মৌলভীবাজার সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাশেদুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, তিন ছাত্রীকে নির্যাতনের ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করা হয়েছে। সেই মামলায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় ভিকটিম ওই তিন কলেজছাত্রীর জবানবন্দি নেওয়া হয়েছে। মামলা তদন্ত অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি।

এর আগে সোমবার (১৩ মে) রাতে শহরতলীর সোনাপুর এলাকায় দীর্ঘদিন থেকে উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করায় তিন কলেজ ছাত্রীকে বাসায় ঢুকে নাভেদ ও তার সহযোগীরা শারীরিকভাবে নির্যাতন করেন। এ ঘটনায় এক ছাত্রীর ভাই বাদী হয়ে মৌলভীবাজার মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

উল্লেখ্য, মামলার এজাহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ১১ কলেজ ছাত্রী শহরতলির সোনাপুর বড়বাড়ি কামাল উদ্দিন সড়কের একটি বাড়িতে মেসে থাকেন। বাসার মালিকের ভাতিজা মৌলভীবাজার সরকারি কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী নাভেদসহ তার কয়েক বন্ধু-বান্ধব মেসের ছাত্রীদের প্রতি অশ্নীল আচরণ করত। বাসা হারানোর ভয়ে তারা এর প্রতিবাদ করত না।

সোমবার বিকেলে এক ছাত্রীকে বাসার সামনে পেয়ে নাভেদ অশ্নীল কথা বলে। ছাত্রীটি এর প্রতিবাদ করলে নাভেদ তার চুলের মুঠি ধরে লাঞ্ছিত করে। এ সময় তার দুই সহপাঠী এগিয়ে এলে তাদের লাথি ও কিল-ঘুষি মারে সে ও তার বন্ধুরা। এ বিষয়টি জানার পর স্থানীয় কাউন্সিলর আসাদ হোসেন মক্কু, জেলা আওয়ামী লীগের এক নেতা লাঞ্ছিত এক ছাত্রীর ভাইসহ বাসার মালিকের উপস্থিতিতে ওইদিন ইফতারের পর সালিশ বসান। সালিশে নাভেদসহ তার বন্ধুরা অশালীন আচরণ করায় কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়া বৈঠক শেষ হয়।

মৌলভীবাজার পৌরসভার কাউন্সিলর আসাদ হোসেন মক্কু বলেন, সোমবার ছাত্রীদের অভিযোগ পেয়ে সালিশে বসে বিষয়টি সামাজিকভাবে সুরাহা করার চেষ্টা হয়েছিলো।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ