শত্রুতা এমনও হয়!

শত্রুতা এমনও হয়!
  © সংগৃহীত

রাতের আঁধারে কৃষকের ৩২৫টি ফলের গাছ কেটে দিল দুর্বৃত্তরা। এমন ঘটনা ঘটেছে নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলার আলমপুর ইউনিয়নের অন্তর্গত সীমান্তবর্তী জোতওসমান গ্রামে। যে পরিমান গাছ নষ্ট হয়েছে এতে তিনজন কৃষক প্রায় দুই লক্ষাধিক টাকার ক্ষতির সম্মুখীন হলেন।

জানা গেছে, গ্রামটির উত্তর মাঠে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত এলাকায় তিনজন কৃষক পাশাপাশি তিনটি ফলের বাগান তৈরি করেন। বাগানে প্রায় দেড় থেকে দুই বছর পূর্বে বিভিন্ন ফলের গাছ লাগানো হয়। কিন্তু গত মঙ্গলবার রাতে কে বা কারা বাগানের গাছগুলো ধারালো অস্ত্র দিয়ে কেটে দেয়।

ওই গ্রামের কৃষক মো. মোফাজ্জল হোসেন সরকারের এক একর জমির বাগানে দুর্বৃত্তরা ১২৫টি রুপালী-১০, বারী-৪ জাতের ৭৫টি আম এবং ২৫টি লিচু গাছ কেটে দেয়। এতে তার প্রায় দেড় লাখ টাকা ক্ষতি হয়।

অপরদিকে পাশের বাগানে আলহাজ মো. মনছুর রহমানের সাড়ে ২৫ শতাংশ জমির ৬০ হাজার টাকা মূল্যের রুপালী-১০ জাতের ৬০টি আম গাছ কেটে দেয়। অপরদিকে কৃষক মো. আব্দুল গোফফারের সাড়ে ২৫ শতাংশ জমিতে রোপিত ৪০টি মাল্টা গাছ কেটে দেয় দুর্বৃত্তরা। এঘটনায় কৃষক গোফফার প্রায় ১০ হাজার টাকার ক্ষতির সম্মুখীন হন।

ঘটনায় ধামইরহাট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন, রাতের বেলা গাছ কাটা নিঃসন্দেহে একটি জঘন্য অপরাধ। গাছ শুধু আমাদের বন্ধুই নয়, বেঁচে থাকায় অন্যতম উপাদান। এখনও পর্যন্ত থানায় কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


মন্তব্য