ছেলে বন্ধুকে বেঁধে কলেজছাত্রীকে শালবনে ধর্ষণ, আটক ৪

  © টিডিসি ফটো

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ আশুরার বিল জাতীয় উদ্যানে বন্ধুর সাথে বেড়াতে গিয়ে স্থানীয় কয়েকজন যুবকের দ্বারা এক কলেজছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষকসহ চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় আরও একজন পলাতক রয়েছেন। আজ মঙ্গলবার অভিযুক্তদের আটক করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আটককৃতরা হলেন- শওগুনখোলা এলাকার শরিয়াত হোসেনের ছেলে ধর্ষক শাহিনুর (৩০)। তার অপর তিন সহযোগী ইসমাইল হোসেনের ছেলে আব্দুল আজিজ (৩১), ফতেপুর এলাকার আব্দুল মতিনের ছেলে সাজেদুর ইসলাম সাজু (২০), আবু তাহেরের ছেলে শাহারুল ইসলাম (২১)। অপর সহযোগী শওগুনখোলা এলাকার মৃত খলিলের ছেলে রেজুয়ানুল (২০) পলাতক রয়েছে।

নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি অশোক কুমার চৌহান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিৎ করে জানান, ধর্ষক শাহিনুরসহ তার তিন সহযোগীকে আটক করে আজ আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। ধর্ষণের শিকার কলেজ ছাত্রীকে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজে পরীক্ষার জন্য পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর সহপাঠী রিয়াজুল ইসলাম বাদি হয়ে সোমবার রাতে নবাবগঞ্জ থানায় ছিনতাই ও ধর্ষণের অভিযোগ করেন।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, সোমবার দুপুরে নবাবগঞ্জে এক সহপাঠি বন্ধুর সাথে আশুরার বিলে ঘুরতে আসে বিরামপুরের এক কলেজ ছাত্রী। বিলের পাশে শালবনে দাঁড়িয়ে গল্প করার সময় শাহিনুরের নেতৃত্বে পাঁচ জন যুবক ওই ছাত্রীর বন্ধুকে মারধর করে হাত-পা বেঁধে মোবাইল ফোন ও টাকা-পয়সা ছিনিয়ে নেয়। আর ওই কলেজ ছাত্রীকে শালবনের ভিতরে তুলে নিয়ে গিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে ছেড়ে দেয়।

উল্লেখ্য, ধর্ষণের শিকার ওই কলেজ ছাত্রী ধর্ষণকারীদের চিহ্নিত করেছেন।


মন্তব্য