যুবকদের জঙ্গি শিবিরে পাঠাতেন কলেজছাত্রী তানিয়া

  © সংগৃহীত

পাকিস্তান-আফগানিস্তানের ওয়াজিরিস্তান জঙ্গি শিবিরে যুবকদের প্রশিক্ষণের জন্য পাঠাতেন কলেজছাত্রী তানিয়া পারভিন। বিভিন্ন দেশে জঙ্গি প্রশিক্ষণের জন্য অনেক যুবক তার মাধ্যমে গিয়েছেন। এমনটাই দাবি করেছেন ভারতের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা।

তানিয়ার বাড়ি ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের উত্তর ২৪ পরগণা জেলার বাদুরিয়ায়। তার কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া বিভিন্ন হোয়াট্সঅ্যাপ গ্রুপের যোগাযোগ থেকে ভারতে ইসলামিক জঙ্গি সংগঠনগুলোর একটি নতুন অক্ষের সন্ধ্যান পেয়েছেন গোয়েন্দারা।

তাদের দাবি, সন্ত্রাসের নতুন এই অক্ষ আমাদের রাজ্যসহ গোটা দেশে শিক্ষিত তরুণীদের নিয়োগ করছে। তৈরি করার চেষ্টা করছে মহিলাদের ব্রিগেড।

এ বছরের মার্চ মাসে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের স্পেশ্যাল টাস্ক ফোর্স তানিয়াকে গ্রেফতার করে। এরপর ওই মামলার তদন্তের দায়িত্ব নেয় জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা (এনআইএ)।

তানিয়াকে গ্রেফতার করার পর বসিরহাট আদালতে রাজ্য পুলিশের তদন্তকারীরা জানিয়েছিলেন, তানিয়ার মোবাইল থেকে ৫০টির বেশি হোয়াট্সঅ্যাপ গ্রুপের তথ্য পাওয়া গেছে। ওই গ্রুপগুলির সাহায্যে তানিয়া অসংখ্য তরুণ-তরুণীকে জিহাদে উদ্ধুদ্ধ করত।

এনআইএ তদন্তকারীদের আদালতে জমা দেওয়া নথি থেকে জানা গেছে, তানিয়া যে সোশ্যাল মিডিয়া গ্রুপগুলোর অ্যাডমিন ছিল, সেগুলোর বেশিরভাগই ছিল পাকিস্তানের ফোন নম্বর ব্যবহার করে তৈরি। জেরায় তানিয়ার দাবি, অনলাইন ফোরামে যোগাযোগ হওয়া এক ‘মুফতি’র মাধ্যমে সে ওই পাক নম্বর পেত এবং সেগুলো ব্যবহার করে গ্রুপগুলো খোলা হত।

কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা বলছেন, সম্প্রতি অনলাইন প্রচারে জিহাদি সংগঠনগুলো মহিলাদের নিয়োগের ব্যাপারে প্রচণ্ড আগ্রহ দেখাচ্ছে। মহিলাদের নিয়ে একের পর এক জিহাদি অনলাইন প্রচার পুস্তিকা প্রকাশ করছে। অনলাইন গ্রুপগুলোতেই মহিলাদের উপস্থিতি বাড়াতে নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ