গ্রামের বাড়িতে প্রতিবেশীর লাঞ্ছনার শিকার ঢাবি ছাত্র

প্রতিবেশীর হাতে লাঞ্ছনার শিকার ঢাবি ছাত্র

নীলফামারি জেলার সৈয়দপুর উপজেলার নিজ গ্রামে প্রতিবেশীর লাঞ্ছনার শিকার হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) এক শিক্ষার্থী। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার আগে থেকে ওই প্রতিবেশী মহিলা ও তার স্বামী নানাভাবে তাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে আসছেন বলে অভিযোগ ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর।

লাঞ্ছনার শিকার ঢাবি শিক্ষার্থীর নাম নাসির হোসেন সুমন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের জহুরুল হক হলের ২০১৮-১৯ সেশনের আবাসিক ছাত্র। নাসির বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবি বিভাগে পড়াশোনা করছেন।

নাসির অভিযোগ করে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার আগে থেকে বাড়ির পাশের একটি কুচক্রী মহিলা ও তার স্বামী আমাদের বিরুদ্ধে নানা ষড়যন্ত্র করে আসছেন। তারা আমার পড়াশোনায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে চায়। আমরা বিরত থাকার চেষ্টা করলেও তারা আমাদের গায়ে পড়ে ঝগড়া করতে আসতে।

ধারাবাহিক লাঞ্ছনার কথা উল্লেখ করে নাসির বলেন, সর্বশেষ গত বুধবার (২৯ জুলাই) সকালে রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় ওই মহিলা আমার মায়ের উপর অতর্কিত হামলা করে। আমি সেখানে গেলে সে আমাকে টার্গেট করে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করে।

ভুক্তভোগী এ শিক্ষার্থী বলেন, এসময় ওই মহিলা এবং তার পরিবারের সদস্যরা আমার মায়ের গায়ে হাত তুললে আমি তাদের ধরতে যাই। আমি ধরতে গেলে তারা আমাকেও মারধর শুরু করে। তারা আমার লুঙ্গি টেনে ছিড়ে ফেলে এবং আমার মায়ের গায়ের জামাকাপড় ছিড়ে দেয়।

বিষয়টি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানী দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে বলেন, ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী এ বিষয়ে আমাদেরকে কোন কিছু অবগত করেনি। তবে অন্য একটি মাধ্যমে তার লাঞ্ছনার কথা শুনেছি। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী প্রশাসনের কাছে অভিযোগ করলে তারা যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। আমরা সব সময় আমাদের শিক্ষার্থীদের পাশে আছি।


মন্তব্য