যশোরে কলেজ ছাত্রকে পুলিশের পিটুনি, বিচারিক তদন্তের নির্দেশ

  © ফাইল ফটো

যশোরে কলেজ ছাত্র ইমরান হোসেনকে পুলিশি নির্যাতনের ঘটনায় বিচারিক তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন হাই কোর্ট। যুগ্ম জেলা জজ বা উপরের পদমর্যাদার বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাকে দিয়ে ঘটনার তদন্ত করে ৬০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য যশোরের জেলা ও দায়রা জজকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আজ সোমবার (৬ জুলাই) ইমরানকে নির্যাতনের অভিযোগের বিচারিক তদন্ত, ক্ষতিপূরণ এবং চিকিৎসা ব্যয় বিবাদীদের বহন করার নির্দেশনা চেয়ে করা রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে এ আদেশ দেন বিচারপতি জেবিএম হাসানের ভার্চুয়াল হাই কোর্ট বেঞ্চ।

ইমরান সদর উপজেলার শাহবাজপুর গ্রামের নেছার আলীর ছেলে। তিনি কাজী নজরুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। তার অভিযোগ, সাজিয়ালি ফাঁড়ির কয়েকজন পুলিশ সদস্য তাকে বেধড়ক মারধর করেছে। এছাড়া পকেটে গাঁজার পোটলা রেখে রিমান্ডের হুমকি দিয়ে তার বাবার কাছে ২৫ হাজার টাকা দাবি করে। পরে ছয় হাজার টাকায় মুক্তি মেলে তার।

হাসপাতালে নিয়ে জানা যায়, ইমরানের দুটি কিডনির অবস্থাই খারাপ। গত ৯ জুন বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হলে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন উদ্বেগ প্রকাশ করে এবং দায়ী পুলিশ সদস্যের শাস্তি দাবি করে। এরপর গত ১৮ জুন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. হুমায়ুন কবির পল্লব ও মোহাম্মদ কাউছার রিট আবেদন করেন।


মন্তব্য