অপহরণের ৩ মাস পর সিমেন্টে ঢালাই করা ব্যবসায়ীর মৃতদেহ উদ্ধার

  © ফাইল ফটো

অপহরণের তিনমাস পর ড্রামের ভেতরে সিমেন্ট দিয়ে জমাটবাধা অবস্থায় এক ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। মৃত ব্যবসায়ীর নাম হেকমত আলী।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার কাঞ্চনের কুশাবো এলাকা থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত হেকমত আলী পশ্চিম কালাদী গ্রামের মৃত. কদম আলীর ছেলে। তিনি গাউসিয়া মার্কেটে মোটর পার্সের ব্যবসা করতেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সহকারী পরিদর্শক আবু সায়েম গণমাধ্যমকে জানান, গত ৪ এপ্রিল সকালে মোটর সাইকেল ও গাড়ির পার্টস ব্যবসায়ী হেকমত আলী তার দোকানের ম্যানেজার ও তার আত্মীয় কেরাবো এলাকার ইয়াকুবের ছেলে রফিকুল ইসলাম সবুজের বিয়ের জন্য পাত্রী দেখতে নিজ বাড়ি থেকে বের হন। এরপর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন।

এরপর গত ১৪ এপ্রিল নিখোঁজ ব্যবসায়ীর স্ত্রী রোকসানা বেগম বাদী হয়ে ম্যানেজার রফিকুল ইসলাম সবুজসহ চারজনকে আসামি করে একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন।

মামলার বাদীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে অধিক অগ্রগতির জন্য আদালত গত ১৮ জুন পিবিআইয়ের ওপর দায়িত্বভার অর্পিত হয়। পিবিআইয়ের এসআই আবু সায়েম দায়িত্ব পেয়ে ২ দিনের রিমান্ডে আনেন রফিকুল ইসলাম সবুজকে। সেই রিমান্ডেই বেরিয়ে আসে লোমহর্ষক হত্যার বর্ণনা। প্রায় ৮৮ দিন পূর্বে ব্যবসায়ী হেকমতকে অন্যান্য সহযোগীদের সহায়তায় হত্যার পর তাকে একটি তেলের ড্রামে ঢুকিয়ে ড্রামটি সিমেন্ট দিয়ে ঢালাই করে ঢাকা-বাইপাস সড়কের কুশাবো এলাকার একটি পুকুরে ফেলে রাখে রফিকুল ইসলাম।

পিবিআই জানিয়েছে, রফিকুলের সহযোগীদের ধরার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ