মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণের পর ভিডিও ফেসবুকে পোস্ট করায় যুবক গ্রেফতার

  © প্রতীকী ছবি

পাবনার চাটমোহর উপজেলায় এক মাদ্রাসাছাত্রীকে (১৬) ধর্ষণের পর তা ভিডিও করে ফেসবুকে পোস্ট করার অভিযোগে দায়ের করা পর্নোগ্রাফি মামলায় রনি মোল্লা (১৮) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আজ মঙ্গলবার (৩০ জুন) সকালে অভিযোগের আলোকে অভিযান চালিয়ে উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের চড়ইকোল গ্রাম থেকে ধর্ষক রনিকে আটক করা হয়।

তিনি ওই ইউনিয়নের মো. রবিউল মোল্লার ছেলে। এ ঘটনায় ভিকটিমের বাবা বাচ্চু সরকার নিজে বাদী হয়ে সংশ্লিষ্ঠ থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, এক বছর আগে ওই মাদ্রাসা ছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে রনি মোল্লার। সেই সুবাদে গত ২০ জুন শনিবার বাড়িতে কেউ না থাকায় কৌশলে রনি মোল্লা ওই মাদ্রাসাছাত্রীকে তার বাড়িতে ডেকে এনে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে শারীরিক সম্পর্কে মিলিত হয় এবং তা ভিডিও করে। পরবর্তীকালে সেই ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ওই মাদ্রাসা ছাত্রীকে কয়েকবার ধর্ষণ করে রনি মোল্লা।

এরপর ওই ছাত্রী বিয়ের জন্য চাপ দিলে রনি সেই ভিডিও ফেসবুক এবং স্থানীয়দের মোবাইলে ছড়িয়ে দেয়। বিষয়টি জানার পর ওই মাদ্রাসাছাত্রীর বাবা মঙ্গলবার (৩০ জুন) সকালে থানায় গিয়ে পর্নোগ্রাফি আইনে মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে চড়ইকোল বাজার থেকে রনিকে গ্রেফতার করে।

চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা শিকার করে বলেন, লিখিত অভিযোগের আলোকে ধর্ষক রনির মোবাইল ফোন জব্দ করে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে রনিকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। 

এছাড়াও ধর্ষণের শিকার ওই মাদ্রাসাছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পাবনা জেনারেল হাসাপতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান ওসি।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ