ভারতীয় আদালতের রায়

মা-বাবাকে ছাড়তে চাপ দিলে স্ত্রীকে ডিভোর্স দিতে পারবে স্বামী

  © সংগৃহীত

কোনো নারী শ্বশুর-শাশুড়িকে ছেড়ে আলাদা থাকতে চাপ দিলে স্ত্রীকে ডিভোর্স দিতে পারবেন স্বামী।রোববার একটি মামলার শুনানিতে এমন রায় দিয়েছেন ভারতের কেরালা রাজ্যের হাইকোর্ট।বিচারপতি এ এম শফিক ও মেরি জোসেফের বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

তারা বলেন, বৃদ্ধ মা-বাবার অসহায়ত্ব এবং স্ত্রীর প্রত্যাশার টানাপোড়েন সন্তানের পক্ষে সহ্য করা অসম্ভব। এমন কোনো ঘটনায় স্ত্রীর দাবির পেছনে বড় কারণ বা গ্রহণযোগ্যতা না থাকলে স্বামী তার স্ত্রীকে ডিভোর্স দিতে পারবেন। খবর: দ্য ওয়াল।

এক ব্যক্তি কেরালা হাইকোর্টে এ সংক্রান্ত মামলা দায়ের করেন। তিনি আবেদন করেছিলেন, স্ত্রী শাশুড়িকে ছেড়ে আলাদা বাড়ি ও সংসার করতে চাইছেন। এ জন্য তিনি আত্মহত্যা করে শাশুড়িকে দায়ী করবেন বলেও হুমকি দিয়েছে। ফলে বৈবাহিক সম্পর্ক রাখা সম্ভব নয় বলে জানান তিনি।

ওই মামলার শুনানিতে তার স্ত্রী আদালতে জানান, তার স্বামী মদ খেয়ে মারধর করেন, দুর্ব্যবহার করেন। এসবই হচ্ছে তার শাশুড়ির ইন্ধনে। এজন্য শ্বশুরবাড়ি ছেড়ে বাপের বাড়ি যেতে বাধ্য হয়েছেন তিনি। এরপরও তিনি স্বামীর সঙ্গে থাকতে চান। তবে মায়ের সঙ্গে থাকতে স্বামী পারবেন না।

আদালত তাদের বক্তব্য শুনে জানান, স্ত্রী বলেছেন, তাতে বোঝা যাচ্ছে, শাশুড়ির সঙ্গে থাকতে চান না তিনি। কিন্তু এর মাঝে ফেঁসে গেছেন স্বামী। ফলে স্বামীকে চাপ দিয়ে মাকে ছাড়তে বলা মানসিক নির্যাতন। এ মানসিক চাপেই মদ্যপ হয়েছেন স্বামী। ভারতীয় হিন্দু বিবাহ আইন অনুযায়ী এটি দণ্ডনীয় অপরাধ।

এরপর আদালত রায় দেন, আদালত মনে করছেন, আবেদনকারী পুরুষটির প্রতি নির্মম আচরণ করেছেন তার স্ত্রী। সে আচরণের জন্য স্ত্রীকে ডিভোর্স দিতে পারেন ওই ব্যক্তি।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ