শিশু ধর্ষককে ক্রসফায়ার, র‌্যাবকে মুহুর্মুহু করতালিতে স্বাগত এলাকাবাসীর

গাজীপুরে শিশু ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি আবু সুফিয়ান র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। র‌্যাব জানায়, গ্রেফতার নিলয়ের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল রাতে টঙ্গীর মধুমিতা রেল লাইন এলাকায় আবু সুফিয়ানকে ধরতে অভিযান চালানো হয়। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি করে নিলয়ের লোকজন। র‌্যাবও আত্মরক্ষার্থে গুলি ছোড়ে। পরে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে পুলিশ।

এদিকে ওই আসামী নিহত হওয়ার পর র‌্যাবকে করতালি দিয়ে স্বাগত জানিয়েছে এলাকাবাসী; যার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। যদিও বিষয়টি পক্ষে-বিপক্ষে নানা মন্তব্য এসেছে ফেসবুকে। 

র‌্যাব-১ গাজীপুর পোড়াবাড়ী ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার লে. কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল-মামুন বলেন, ‘আজ ভোররাতে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। অভিযানে র‌্যাব সদস্যরা তিন রাউন্ড গুলি ও একটি বিদেশি পিস্তল উদ্ধার করেছে।’ আবু সুফিয়ানের বাড়ি ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার মনসুরাবাদ গ্রামে। তিনি টঙ্গী এলাকায় বসবাস করতেন।

আব্দুল্লাহ আল-মামুন আরও বলেন, ‘আমাদের কাছে তথ্য ছিল মধুমিতা রেল গেট এলাকায় কিছু সন্ত্রাসী অবস্থান করছে। র‌্যাব সদস্যরা পৌঁছালে সন্ত্রাসীরা স্তূপ করে রাখা ইটের আড়াল থেকে গুলি চালাতে শুরু করে। আত্মরক্ষার্থে র‌্যাব সদস্যরাও পাল্টা গুলি চালায়। এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে র‌্যাব সদস্যরা একজনের মরদেহ দেখতে পায়।’

র‌্যাব কর্মকর্তা আরো বলেন, ‘১৫ মে মধুমিতা রেল গেট বেলতলা এলাকায় এক শিশুকে দলবদ্ধ ধর্ষণের পরে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। সেই ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার প্রধান আসামি আবু সুফিয়ান। তার বিরুদ্ধে ছিনতাইসহ আরও অনেক অভিযোগ রয়েছে। ধর্ষণ মামলার আরেক আসামিকে গত ১৮ মে টঙ্গী পূর্ব থানার রেলওয়ে স্টেশন এলাকা থেকে আটক করে র‌্যাব। তার বাড়ি কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলার কুমড়ি গ্রামে।’


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ