মাস্ক তৈরি করছেন কারাগারের বন্দীরাও

নাটোর কারাগারে বন্দীরা নিজেরাই নিজেদের জন্য মাস্ক তৈরি করেছেন। এতে কারাবন্দী এক হাজার ৫১ জন বন্দীর মাস্কের চাহিদা পূরণ হয়েছে । মঙ্গলবার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন জেল সুপার আব্দুল বারেক।

করোনা সংক্রমণের উদ্বেগ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে দেশব্যাপী বাড়ছে ভাইরাস প্রতিরোধ সামগ্রীর চাহিদা। সারা দেশের ন্যায় নাটোরেও জনসাধারণ ধীরে ধীরে মাস্ক ব্যবহারে অভ্যস্ত হতে শুরু করেছে। প্রকারভেদে বিভিন্ন ধরনের মাস্ক ১০ থেকে ৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এ অবস্থায় কারা কর্তৃপক্ষের এমন সিদ্ধান্তে খুুশি বন্দিরাও।

আব্দুল বারেক বলেন, জেলা কারাগারের কয়েদিরা নানরকম আয়বর্ধক কাজ করে থাকেন। এরই অংশ হিসেবে বর্তমান সময়ের অতি প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা উপকরণ হিসেবে মাস্ক তৈরি করেছে তারা। বন্দীদের নিকট এই মাস্ক ২৫ টাকা পিস হিসেবে বিক্রি করা হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, কারাগারের চাহিদা মিটিয়েও আমরা মাত্র ২৫ টাকায় ফিল্টার মাস্ক বাইরেও সরবরাহ করতে পারব। যদি কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান মাস্কের জন্য আমাদের সাথে যোগাযোগ করে তবে আমরা ওই দামে স্বল্প সময়ের মধ্যেই তা সরবরাহ করতে পারব।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ