১৫ জানুয়ারি ২০২০, ২২:৫৩

স্বামীর খোঁজে এসে ‘গণধর্ষণের শিকার’ গৃহবধূ

ভোলার চরফ্যাশনে স্বামীর খোঁজে এসে এক গৃহবধূ গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। গতকাল মঙ্গলবার পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের একটি বাগানবাড়িতে আটকে রেখে ওই নারীকে ‘ধর্ষণ’ করে একদল যুবক। এ ঘটনায় পুলিশ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে। বুধবার আদালত তাঁদের কারাগারে পাঠিয়েছেন।

জানা যায়, ধর্ষণের শিকার ওই গৃহবধূর বাড়ি কিশোরগঞ্জে। তিনি দুই সন্তানের জননী। গ্রেপ্তার দুজন হলেন চরফ্যাশন পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের নয়ন মিস্ত্রি (২৩) ও মনির মাঝি (২৫)। নয়ন পেশায় রিকশাচালক। তাঁদের পাশাপাশি মোসলেহ উদ্দিন নামের আরেক ব্যক্তিকে আটক করা হয়। তবে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাঁকে ছেড়ে দেয় পুলিশ। রাসেল নামের এক আসামি এখনো পলাতক বলে পুলিশ জানিয়েছে।

চরফ্যাশন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সামসুল আরেফিন বলেন, ওই গৃহবধূকে ভোলা সদর হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য পাঠিয়েছে।  পুলিশ তাৎক্ষণিক পৌরসভার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে।  এই দুজনকে আদালত কারাগারে পাঠিয়েছেন।তদন্তে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত হওয়া গেছে।

মামলার এজাহার অনুযায়ী, চরফ্যাশন উপজেলার এক ব্যক্তির সঙ্গে চার থেকে পাঁচ বছর আগে তাঁর বিয়ে হয়। বিয়ের কয়েক বছরের মাথায় ওই ব্যক্তি তাঁকে ফেলে চরফ্যাশনে চলে আসেন। গৃহবধূ তাঁর খোঁজে মঙ্গলবার ঢাকা থেকে লঞ্চযোগে চরফ্যাশন উপজেলার বেতুয়া লঞ্চঘাটে নামেন। এ সময় রিকশাচালক নয়ন তাঁকে জানান, তিনি ওই ব্যক্তিকে চেনেন। এরপর নয়ন তাঁকে পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের একটি বাগানবাড়িতে নিয়ে যান। সেখানে সারা দিন গৃহবধূকে আটকে রেখে সহযোগীদের নিয়ে ধর্ষণ করেন নয়ন।