ভালোবাসা দিবসে মাঠে নামছে ৩৫ প্রত্যাশীরা

ভালোবাসা দিবসে মাঠে নামছে ৩৫ প্রত্যাশীরা
  © ফাইল ফটো

চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা ৩৫ করার দাবিতে দীর্ঘদিন থেকে আন্দোলন করে আসছেন শিক্ষার্থীরা। গণঅনশন, আমরণ অনশনসহ বেশকিছু কর্মসূচী পালন করে আসছিলেন তারা। ধারাবাহিক আন্দোলনের অংশ হিসেবে আগামী শুক্রবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে দেশব্যাপী ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভালোবাসা চাই’ নামে নতুন কর্মসূচী আহবান করেছে আন্দোলনকারীরা।

আজ বৃহস্পতিবার রাতে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্রকল্যাণ পরিষদের প্রধান সমন্বয়ক মুজাম্মেল মিয়াজী দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে বিষয়টি জানিয়েছেন। আগামীকাল বিকেলে ৪টায় দেশব্যাপী এবং রাজধানী ঢাকায় কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে শাহবাগের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে ঘোষিত কর্মসূচী পালন করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষণ করতে এবং তাদের দাবি বাস্তবায়নের লক্ষে ভিন্ন ধরণের এ কর্মসূচী আহবান করা হয়েছে। এছাড়া এ কর্মসূচী শেষে ভবিষ্যতে বৃহত্তর আন্দোলনের স্বার্থে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে।

মুজাম্মেল মিয়াজী বলেন, আগামীকাল ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ভালোবাসা চেয়ে আমাদের সকল নেতা-কর্মীরা স্ব-স্ব অবস্থান থেকে এ কর্মসূচী পালন করবেন। কোটি বেকার ছাত্র যুবক মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে ভালবাসা চায়, কর্মসংস্থান চায় এবং চাকরি আবেদনের বয়সসীমা ৩৫ করাসহ আমাদের ৪ দফা দাবির বাস্তবায়ন চায়।

তাদের ৪ দফা দাবি হলো- চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা বৃদ্ধি করে ৩৫ বছরে উন্নীত করা; চাকরির আবেদন ফি কমিয়ে ৫০ থেকে ১০০ টাকার মধ্যে নির্ধারণ করা; চাকরির নিয়োগ পরীক্ষাগুলো জেলা কিংবা বিভাগীয় পর্যায়ে নেওয়া ও চাকরির নিয়োগ প্রক্রিয়া তিন থেকে ছয় মাসের মধ্যে সম্পন্ন করা এবং সুনির্দিষ্ট নীতিমালা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করা।

আন্দোলনকারী বলছেন, বর্তমান সরকারের ইশতিহার অনুযায়ী তাঁরা ক্ষমতায় আসলে চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা বৃদ্ধি করবে। এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানিয়েছিলেন ‘৩৫’ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সাথে আলোচনা হয়েছে। আলোচনার বিষয়ে তোমাদের দ্রুত সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেওয়া হবে। কিন্তু দুঃখের বিষয় যে কোন প্রকার সিদ্ধান্ত না জানিয়ে ৪১তম বিসিএসের সার্কুলার দিয়ে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। যার কারণে দেশব্যাপী লক্ষাধিক ৩৫ প্রত্যাশী শিক্ষার্থী ক্ষুদ্ধ হয়ে পড়েছে।


মন্তব্য