৩৫ চাই আন্দোলনে পুলিশের লাঠিচার্জ, গ্রেফতার ৭

  © ফাইল ফটো

চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩০ থেকে ৩৫ করাসহ ৪ দফা দাবিতে আন্দোলনকারীদের উপর লাঠিচার্জ করেছে পুলিশ। এ সময় ৩ জন আহত এবং ৭ জন গ্রেফতার হয়েছে বলে জানিয়েছেন আন্দোলনের মুখপাত্র মুজাম্মেল মিয়াজী।

শুক্রবার (২৫ অক্টোবর) শাহবাগে এ ঘটনা ঘটে।

আন্দোলনকারীরা জানায়, পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসাবে শুক্রবার কেন্দ্রিয় শহীদ মিনারের সামনে থেকে শাহবাগে মহাসমাবেশে যোগদেন তারা। বিকেল তিনটা থেকে তারা এখানে অবস্থান করে। পরে সোয়া পাঁচটার দিকে পুলিশ তাদের শাহবাগ মোড় ছেড়ে যেতে বলে এবং এক পর্যায়ে লাঠিচার্জ করে। এতে আন্দোলনকারীদের তিনজন গুরুতর আহত হন এবং ৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়।

এরআগে গত বুধবার (০২ অক্টোবর) দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ বছর করাসহ চার দফা দাবিতে মহাসমাবেশ ও গণ অনশন কর্মসূচি ঘোষণা দেন চাকরি প্রত্যাশী সংগঠনটির নেতা-কর্মীরা।

চার দফা দাবির মধ্যে রয়েছে, চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা বৃদ্ধি করে ৩৫ বছরে উন্নীত করা; চাকরির আবেদন ফি কমিয়ে ৫০ থেকে ১০০ টাকার মধ্যে নির্ধারণ করা; চাকরির নিয়োগ পরীক্ষাগুলো জেলা কিংবা বিভাগীয় পর্যায়ে নেওয়া ও চাকরির নিয়োগ প্রক্রিয়া তিন থেকে ছয় মাসের মধ্যে সম্পন্ন করা এবং সুনির্দিষ্ট নীতিমালা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করা।

আন্দোলের সমন্বয়ক মুজাম্মেলক হক মিয়াজী বলেন, আমরা অহিংস আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছিলাম। কিন্তু পুলিশ আমাদের উপর হামলা করে। আমরা ২ ঘণ্টার আলটিমেটাম দিচ্ছি। যদি এর মধ্যে আমাদের গ্রেফতাকৃতদের ছাড়া না হয় তাহলে আমাদের আন্দোলন চলমান থাকবে। আগামীকাল থেকে আমরা গণঅনশনে বসব আমরা।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ