চুল পড়া ঠেকাতে হেয়ার মাস্ক

চুল পড়া ঠেকাতে হেয়ার মাস্ক
  © ফাইল ফটো

নারী কিংবা পুরুষ উভয়ের সৌন্দর্যের গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ হচ্ছে চুল। এই চুল যখন পড়তে শুরু করে তখন চিন্তার যেন অন্ত থাকে না। চুল পড়া ঠেকাতে চলে বিভিন্ন রকমের পরীক্ষা। তবে সব পরীক্ষা কাজে দেয় না। তবে কিছু ঘরোয়া উপাদান দিয়ে বাড়িতেই তৈরি করা যেতে পারে চুল পড়া রোধ করার প্রাকৃতিক হেয়ার মাস্ক।

অ্যালোভেরা এবং নারিকেল তেল: চুলের যত্নে অ্যালোভেরা এবং নারিকেল তেল খুবই উপকারী। এই দুটির মিশ্রণে তৈরি করা যেতে পারে হেয়ারমাস্ক। একটি পাত্রে পরিমাণ মতো নারিকেল তেল নিয়ে তাতে কিছুটা অ্যালোভেরা জেল মেশান। এরপর উপকরণ দুটি খুব ভালো করে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। তৈরি হয়ে যাবে আপনার হেয়ার মাস্ক। ভালো উপকার পেতে মাস্কটি অবশ্যই রাতের বেলা ব্যবহার করবেন। পরদিন সকালে উঠে স্বাভাবিক তাপমাত্রার পানি দিয়ে ভালো করে মাথা ধুয়ে ফেলুন। চুল পড়া সমস্যায় এটি বেশ কার্যকরী।

কারিপাতা, মেথি এবং আমলা: কারিপাতা চুলে পুষ্টি জোগাতে বেশ সাহায্য করে। এটি চুল পড়া বন্ধ করার পাশাপাশি নতুন চুল গজাতেও সাহায্য করে। চুলের পুষ্টিতে আমলা এবং মেথির ভূমিকাও অনেক। কারিপাতা, মেথি এবং আমলা দিয়ে তৈরি হেয়ার মাস্ক চুল পড়া বন্ধে বেশ কার্যকরী। প্রথমে কারিপাতা, মেথি এবং আমলা দিয়ে ভালো করে একটি মিশ্রণ তৈরি করুন। এরপর এই পেস্ট চুলের গোড়া থেকে শেষ পর্যন্ত ভালো করে ম্যাসাজ করুন। মিশ্রণটি মাথায় দিয়ে ঘণ্টাখানেক রেখে দিন। এরপর শ্যাম্পু দিয়ে ভালো করে চুল ধুয়ে ফেলুন।

তেল ভিটামিন ই হেয়ার মাস্ক: ভিটামিন ‘ই’ সমৃদ্ধ হেয়ার মাস্ক চুলের জন্য ভীষণ উপকারী। এটি আপনার চুল পড়া বন্ধ করার পাশাপাশি হেয়ার ন্যারিশমেন্ট করে। চুলের গোড়া মজবুত রাখে। নারিকেল তেল, আমন্ড অয়েল, জুজুবা তেল, অলিভ অয়েল, পছন্দমতো যেকোনোটি নিন। ভিটামিন ই ক্যাপসুল নিন তিনটি। তেলের সঙ্গে ভিটামিন ই ক্যাপসুল ভেঙে মিশিয়ে নিতে হবে। এই মিশ্রণ মাথায় ও পুরো চুলে ভালো করে মাখিয়ে ১০ মিনিট ম্যাসাজ করতে হবে। সারা রাত এই তেল মাথায় রাখা গেলে সব থেকে বেশি উপকার হবে। একদিন পরপর এই তেল ব্যবহার করা যায়। এই মাস্ক চুলে ভেতর থেকে পুষ্টি জোগাবে। এটি চুলের গোড়া পরিষ্কার করে চুলকে মসৃণ ও চুলের গোড়া শক্ত করে।


মন্তব্য