পাবলিক শুধু নাটক-সিনেমায় অশ্লীলতা পায়, দুর্নীতি-হত্যা অশ্লীল না?

পাবলিক শুধু নাটক-সিনেমায় অশ্লীলতা পায়, দুর্নীতি-হত্যা অশ্লীল না?
  © ফাইল ফটো

কবি ও অভিনয়শিল্পী হিসেবে সবার কাছে পরিচিত মারজুক রাসেল। সাম্প্রতি যিনি বেশ কয়েকটি বাংলা নাটকে অভিনয় নিয়ে আলোচনার পাশপাশি সমালোচনায় চলে আসে। আর এসব সমালোচনার জবাবও দিচ্ছেন ভিন্ন সুরে। তার প্রত্যেকটা সমালোচনার উত্তর একেকটা যৌক্তিক রুপে দাড়িয়ে যাচ্ছে। এবার সমালোচনার কথা বলতে গিয়ে তিনি অশ্লীলতাবিষয়ক একটি পোস্ট শেয়ার করেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে।

গতকাল বুধবার মারজুক রাসেল তার নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে এমন একটি পোস্ট দিয়েছেন। তার ওই পোস্টে সেখানে তিনি লিখেছেন, "পাবলিক খালি কবিতা,গল্প,নাটক,সিনেমায় অশ্লীলতা খুঁজে পায়!

দুর্নীতি অশ্লীল না। হত্যা, গণহত্যা অশ্লীল না। খাদ্যে ভেজাল অশ্লীল না। ঘুষ নেওয়া অশ্লীল না। ঠকানো অশ্লীল না। বন উজাড় অশ্লীল না। অবৈধ দখল অশ্লীল না। ড্রাগ ক্রয়,বিক্রয় অশ্লীল না। চোরাচালান অশ্লীল না। দাম্পত্যকলহ অশ্লীল না। মিথ্যা বলা অশ্লীল না। শিল্পকর্মের কপিরাইটের অর্থ আত্মসাৎ অশ্লীল না।...

এইরকম লক্ষ-কোটি 'অশ্লীল না' আমাদের ক্লান্ত ক্লান্ত ক্লান্ত করে।"

এই অভিমতের সঙ্গে ফেসবুক অনুসারীদের চোদ্দ হাজারেরও বেশি মানুষ ঐক্যমত প্রকাশ করেছেন। একইসাথে মন্তব্যের মাধ্যমে মিশ্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন প্রায় সাড়ে সাতশ জন, শেয়ার হয়েছে দুই হাজার দুইশ।

এরইমধ্যে তার দেয়া পোস্টটি ভাইরাল হয়ে গেছে। বিভিন্নজন শেয়ার ও স্ক্রিনশট ব্যবহার করে পোস্ট করছেন। মন্তব্য যাচাই করে দেখা গেছে, অধিকাংশের অভিমত মারজুক যে-সমস্ত বিষয় নিয়ে এসেছেন সেসব অন্যতম অশ্লীল, যা দূরীকরণ জরুরি ।

এর আগে মারজুক রাসেল এবার ঈদে বেশকিছু নাটকে কাজ করেছেন, যেগুলোর লুক তাঁকে নাটক মুক্তির আগেই আলোচনায় নিয়ে আসে। এগুলো হলো মাবরুর রশিদ বান্নাহর ‘আমার অপরাধ কী’, আলোক হাসানের ‘চিলে কোঠার বাদশা’, কাজল আরেফিন অমির ‘মাস্ক’, সহিদ উন নবীর ‘কুফা’, ইমরাউল রাফাতের ‘ বাঘের খাঁচা’, হিমু আকরামের ‘বেদানা বিবির বিন্নি’, হাসিব হোসাইন রাখির ‘পেইন-ড্রাইভ’, নাজমুল রনির ৭ পর্বের ধারাবাহিক ‘কে-কম্পানি’।


মন্তব্য