ডব্লিউএইচও থেকে বেরিয়ে গেলেন ট্রাম্প

  © ফাইল ফটো

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) সঙ্গে আর কোনো সম্পর্ক থাকছে না যুক্তরাষ্ট্রের। সেজন্য সংস্থাটির সাথে সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্ন করার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর আগে করোনা মহামারিতে চীনকে পক্ষপাতিত্ব করায় স্বাস্থ্য সংস্থাকে অর্থ সহায়তা বন্ধ করে দিয়েছিল ট্রাম্প। শুক্রবার (২৯ মে) হোয়াইট হাউসে এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন ।

সিএনএন এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, করোনা মহামারির শুরু থেকেই ট্রাম্প এমন হুমকি দিয়ে আসছিলেন। এদিকে ট্রাম্প বলেছেন, সংস্থাটি আমাদের অনুরোধ রাখেনি। তাই ডব্লিউএইচওর সঙ্গে আমাদের সব ধরনের সম্পর্ক ছিন্ন করছি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থায় যে অর্থায়ন করা হতো তা ফেরৎ এনে স্বাস্থ্যের উন্নয়নে খরচ করা হবে।

এর আগে বৃহস্পতিবার করোনাভাইরাসকে ‘চীনের জঘন্য উপহার’ বলেছিলেন ট্রাম্প। এর একদিন পর আবারও চীনাদের দিকে আঙুল তুলে বললেন, ভাইরাস নিয়ে চীনের কাছ থেকে জবাব চায় বিশ্ব, আমাদের অবশ্যই স্বচ্ছ থাকতে হবে।

ট্রাম্প অভিযোগ করেন, করোনা ভাইরাসের বিষয়ে চীনের কাছে যেসব তথ্য ছিল তা তারা ঠিকমতো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে জানায়নি। চীনা কর্মকর্তারা তাদের দায়বদ্ধতা উপেক্ষা করে ‌‘বিশ্বকে বিভ্রান্ত’ করার জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ওপর চাপ প্রয়োগ করেছিলেন। এ কারণে অগণিত মানুষকে জীবন দিতে হয়েছে এবং বিশ্বজুড়ে গভীর অর্থনৈতিক সঙ্কট সৃষ্টি হয়েছে।

ট্রাম্পের সম্পর্ক ছিন্ন করার বিষয়ে ডব্লিউএইচওর এক মুখপাত্র সিএনএনকে বলেন, তাদের কাছে কোনো মতামত নেই। এর আগে মে মাসের শুরুর দিকে ডব্লিউএইচওকে চিঠি দিয়ে ট্রাম্প জানিয়েছিলেন, কোভিড-১৯ মোকাবিলায় ডব্লিউএইচও যদি ৩০ দিনের মধ্যে উন্নতি করার প্রতিশ্রুতি দিতে না পারে তাহলে যুক্তরাষ্ট্র ডব্লিউএইচওকে দেয়া অর্থায়ন স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেবে।

গত বছর ডিসেম্বরে চীন থেকে এই মহামারি শুরু হলেও ইউরোপ এবং যুক্তরাষ্ট্রে তাণ্ডব চালিয়ে যাচ্ছে করোনাভাইরাস। এখন এর কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠছে রাশিয়া, ব্রাজিল ও ব্রিটেন।

এদিকে আক্রান্ত ও নিহতের সংখ্যায় এখন পর্যন্ত সবার ওপরে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। (সূত্র: সিএনএন)


মন্তব্য

এ বিভাগের আরো সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ