করোনা ভাইরাসে জাপানে প্রথম মৃত্যু

  © ডেইলি মেইল

চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে জাপানে একজনের মৃত্যু হয়েছে। দেশটির কানাগাওয়া জেলায় এক বৃদ্ধা করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন বলে নিশ্চিত করেছে কর্তৃপক্ষ।

জাপানের স্বাস্থ্যমন্ত্রী কাৎসুনোবু কাতু বলেছেন, গত ২২ জানুয়ারি করোনাভাইরাস সংক্রমণের লক্ষণ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। চিকিত্‍‌সাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার তার মৃত্যু হয়। এরপর তার করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়া নিশ্চিত হওয়া যায়। ডেইলি মেইল এ খবর জানিয়েছে।

তিনি বলেন, টোকিওতে এক ট্যাক্সিচালক এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। পরীক্ষায় তার শরীরে করোনাভাইরাস মিলেছে।

জাপানের সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, পশ্চিমাঞ্চলীয় ওয়াকাইয়ামায় এক চিকিৎসক করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া সবমিলিয়ে এ পর্যন্ত প্রায় ৩০০ জন আক্রান্ত হয়েছেন। ফলে জাপানে মানুষের মধ্যে আতঙ্ক বাড়ছে।

চীনের সরকারি তথ্য অনুযায়ী, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছেন এক হাজার ৩৮০ জন। সর্বশেষ দিনেও প্রাণ হারিয়েছেন ১২১ জন। আক্রান্ত হয়েছেন ৬৩ হাজার ৮৫১ জন। 

এছাড়া জাপানের সাগরে কোয়ারেন্টাইন করে রাখা জাহাজে আরও ৪৪ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাড়ালো ২১৮ জনে। বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

এর আড়ে বুধবার চীনে ভয়াবহ আকারে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসে এক দিনে মৃত্যুর নতুন রেকর্ড তৈরি হয়। দেশটি হুবেই প্রদেশে বুধবার ২৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে। করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর এটি সবচেয়ে ভয়াল দিন বলে মনে করা হচ্ছে।

এছাড়া নতুন করে এ ভাইরাসে ১৪ হাজার ৮৪০ জন আক্রান্ত হয়। অথচ আগের দুই দিন এ ভাইরাস মৃত্যু ও আক্রান্তের হার কিছুটা কমেছে বলে মনে করা হচ্ছিল।

ইতোমধ্যে চীনের বাইরে আরও অন্তত ৩০টি দেশে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন মানুষ। চীনের বাইরে এ পর্যন্ত তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে একজন জাপানে, একজন হংকংয়ে এবং অপরজন ফিলিপাইনের নাগরিক বলে জানা গেছে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ