অন্যকে ভালো রাখার চেষ্টাটাই ভালোবাসা— লাভগুরু তামিম

তামিম হাসান, যিনি ‘লাভগুরু’ নামে সুপরিচিত

তামিম হাসান। যিনি ‘লাভগুরু’ নামে সুপরিচিত। রেডিও আমার ৮৮.৪ এফএম-এর জনপ্রিয় শো ‘আমার ভালোবাসা উইথ লাভগুরু’ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে হাজার হাজার ভালোবাসার গল্প শুনেছেন। সেইসঙ্গে শুনিয়েছেন শ্রোতাদের। কিন্তু লাভগুরুর চোখে ভালোবাসা কেমন? সে প্রশ্ন এবং প্রাসঙ্গিক বিষয় নিয়ে লাভগুরুর সঙ্গে কথা বলেছেন অজেয় চৌধুরী

ভালোবাসা কাকে বলে? এই প্রশ্নের বৈচিত্র্যময় উত্তর পাওয়া যাবে। অনুভবের পার্থক্যের কারণেই এমন হয়। স্বয়ং রবীন্দ্রনাথও দ্বিধান্বিত ছিলেন। তিনি বলে গেছেন, তোমরা যে বলো ভালোবাসা ভালোবাসা, সখী ভালোবাসা কারে কয়? তবে লাভগুরু তামিম হাসানের কাছে ভালোবাসার দারুণ একটা সংজ্ঞা আছে। তা হচ্ছে—নিজের বাইরেও একটা মানুষকে নিজের চেয়ে ভালো থাকতে দেখার আনন্দই ভালোবাসা।

তিনি বলেন, ‘নিজে ভালো থাকার আনন্দ যতটা, তার চেয়ে বেশি আনন্দ যখন পাওয়া যায় অন্যকে ভালো রাখতে পারায়, সেটাই ভালোবাসা। ইমোশন, এট্রাকশন তো বাহ্যিকভাবেই টের পাই আমরা। অন্যকে ভালো রাখতে পারার চেষ্টাটা ইনার ফিলিং। এটাই আমার কাছে ভালোবাসা।’

তামিম হাসানের মতে, পৃথিবীর সব প্রেমিকই নিজের চেয়ে তার প্রেমিক-প্রেমিকাকে বেশি ভালো রাখতে চায়। হয়তো সব সময় সবাই পেরে ওঠে না। তবে সত্যিকার ভালোবাসায় এ সূত্রটাই কাজ করে। অনেক সময় আমরা ভালোলাগা এবং ভালোবাসা গুলিয়ে ফেলি। এ দুটোর পার্থক্যের চমত্কার একটা ব্যাখ্যা দিলেন লাভগুরু।

তিনি বলেন, ‘ভালোলাগা হচ্ছে সেটা, যখন কেউ আমাদের ছেড়ে চলে গেলে আমরা তাকে মিস করি, কিন্তু তার জন্য অস্থির হয়ে উঠি না। অন্যদিকে ভালোবাসার মানুষের সাময়িক অনুপস্থিতিতে আমরা শুধু তাকে মিস-ই করি না, অস্থিরও হয়ে উঠি প্রচন্ড রকম। এই অস্থিরতার অন্য নাম প্রেম’।

প্র্রেমে পড়লে মানুষ একে অন্যের প্রতি মুগ্ধ হয়। কারণে মুগ্ধ হয়, আবার অকারণেও হয়। প্রেমের আরো একটা তিক্ত সত্য— প্রেম ভাঙে। মুগ্ধতা মরে যায়।

এখনকার প্রেম ভাঙা নিয়ে লাভগুরুর উপলব্ধি—হাতের কাছে প্রচুর অপশন থাকায় প্রেম ভেঙে পড়ে সহজেই। বাঙালির জীবনে বিয়ের গুরুত্ব যেহেতু অপরিসীম, এর সঙ্গে প্রেমের রসায়নটাও কম গুরুত্বের নয়। এ প্রসঙ্গে লাভগুরু মজা করে বললেন, ‘এ দুটোকে আমি ট্রেলার এবং ফুল মুভির সঙ্গে তুলনা করি। বিয়ের আগের প্রেম ট্রেলার। পরেরটা ফুল মুভি।’

‘লাভ এট ফার্স্ট সাইট’ বহুল প্রচারিত কথা। অনেকেই এই টার্মের সঙ্গে একমত নন। প্রথম দর্শনে ভালোবাসা— ব্যাপারটা কারো কারো কাছে বাড়াবাড়ি মনে হতে পারে। তবে লাভগুরুর দৃষ্টিতে, প্রত্যেকটা প্রেমই প্রথম দর্শনেই হয়ে যায়।

তিনি ব্যাখ্যা দিলেন এভাবে—‘আমরা প্রতিদিন একাধিক মানুষের সঙ্গে মিশি। কথা বলি। কিন্তু খেয়াল করলে বোঝা যায়, যার সঙ্গে প্রেম হয়ে যায় তার সঙ্গে প্রথম দেখাটা অন্যরকমই অনুভূত হয়। হৃদয়ে একটা দোলা দিয়ে যায়। যে দোলাটা প্রতিদিনকার দেখা হওয়া অন্য মানুষের সঙ্গে হয় না। আমরা কখনো কখনো সেটা তাড়াতাড়ি বুঝতে পারি। কখনো সময় লাগে। তবে প্রেম যা হওয়ার ওই প্রথম দর্শনেই হয়ে যায়।’

রেডিও আমার ৮৮.৪ এফএম-এর জনপ্রিয় শো ‘আমার ভালোবাসা উইথ লাভগুরু’র মাধ্যমে হাজারো প্রেমের গল্প শুনেছেন তামিম হাসান। অনুষ্ঠানের অতিথিদের প্রেম নিয়ে কার্যকর টোটকাও দিতে শোনা যায়। কিন্তু নিজেও প্রেমের চিরাচরিত নিয়মের বাইরে নন। তারও প্রেমের সম্পর্কে ভাঙন আসে। তিনিও হয়তো প্রেম ভাঙার পর বিষাদগ্রস্ত হন। তবে সম্পর্কটা দুজনের জন্যই শান্তিময় না হলে সে সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসার পক্ষে তিনি।

নিজের প্রেম এবং প্রেমের ভাঙন নিয়ে এভাবেই বলেন লাভগুরু—‘একটা সম্পর্ক দীর্ঘদিন চলার পর নানা কারণেই দূরত্ব তৈরি হতে পারে। সেসব কারণে সম্পর্কের সৌন্দর্যটা কমতে থাকে। সম্পর্কটাকে দুজনের কারো কাছেই তখন আর পরিপূর্ণ মনে হয় না। ছোট ছোট অভিযোগ আর অনুযোগগুলো তখন আর দুজন মিলে ডিঙ্গানো যায় না। ভেতরে ভেতরে একটা মনস্তাত্বিক দ্বন্দ্ব শুরু হয়। এক সময় দুজনেই ক্লান্ত হয়ে পড়ে। এত ক্লান্তি নিয়ে সম্পর্ক এগিয়ে নেওয়ার চেয়ে একে অপরের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকে ভালোবাসা ভালো লাগার অবশিষ্টাংশ নিঃশেষ হওয়ার আগেই দুজনের আলাদা হয়ে যাওয়া আমার কাছে যুক্তিযুক্ত।

তবে শুধুমাত্র সফলভাবে সংসার করতে না পারা অথবা সারাজীবন একসাথে হাতে হাতে রেখে চলতে না পারার ব্যর্থতায় আমি রবীন্দ্রনাথের ছোট গল্পের মতো জীবনের সুন্দরতম এই সময়গুলোকে অথবা সম্পর্কগুলোকে ব্যর্থপ্রেম বলতে চাই না’।

ভালোবাসা দিবসকে সামনে রেখে লাভগুরু আরেকটা উপলব্ধির কথা বললেন খুব দৃঢ় কণ্ঠে। তা হলো—মানুষের বেঁচে থাকার জন্য ভালোবাসা খুব প্রয়োজন। খুব।-ইত্তেফাকের সৌজন্যে


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ