৬০ হাজার ধর্ষণের অভিযোগ জাতিসংঘ কর্মীদের বিরুদ্ধে

  © সংগৃহীত

বিগত এক দশকে জাতিসংঘ কর্মীদের দ্বারা ৬০ হাজারেরও বেশি নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে দাবি করেছেন জাতিসংঘের কর্মকর্তা অ্যান্ড্রু ম্যাসেলিওড। সংস্থাটির কর্মীরা উদ্ধার, সহায়তা বা ত্রাণ কার্যক্রমের আড়ালে শিশু ধর্ষণ ও যৌন হয়রানির এসব ঘটনা ঘটিয়েছে। গত বছর এ বিষয়ক একটি প্রতিবেদন ব্রিটিশ আন্তর্জাতিক ‍উন্নয়ন বিষয়কমন্ত্রী প্রিতি পাটেলের হাতে তুলে দিয়েছিলেন তিনি।

২০১৮ সালেও এমনই চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট পেশ করেছিলেন তিনি। অধ্যাপক, সমাজকর্মী অ্যান্ড্রু ম্যাকলয়েডের দাবি, গোটা বিশ্বেই ছড়িয়ে রয়েছে জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থার এই কর্মীরা। পিছিয়ে পড়া দেশগুলোতে শিক্ষা, স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে কাজ করে ওই কর্মীরা। শিশু ধর্ষণ, শিশু ও নারী পাচারের মতো ঘৃণ্য অপরাধের বিরুদ্ধে আওয়াজ তোলাই যাদের কাজ, তাদের বেশিরভাগই শিশু ধর্ষণে জড়িত।

তিনি আরও বলেন, জাতিসংঘের ছাতার তলায় থাকা বিভিন্ন সংস্থায় অন্তত ৩,৩০০ শিশু ধর্ষক লুকিয়ে রয়েছে। ভালো মানুষের মুখোশ পরে তারা এই জঘন্য অপরাধ ঘটিয়ে চলেছে বছরের পর বছর। শিশুরাই মূলত তাদের যৌন লালসার শিকার।

এই ভয়ঙ্কর অভিযোগকে অস্বীকার করতে পারেননি জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। অ্যান্ড্রু ম্যাকলয়েডের অভিযোগ মেনে নিয়ে তিনি বলেছেন, গত এক দশকে অন্তত ৬০ হাজার ধর্ষণের ঘটনা ঘটিয়েছে জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থার কর্মীরা। এনজিও ও উদ্ধারকারী দলের সদস্যেরাই তাদের মধ্যে বেশি। সূত্র : দ্য ওয়াল।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ