হিজাব পরার অনুমতি মিলছে আফ্রিকার সামরিক বাহিনীতে

মেজর ফাতিমা ইসহাক  © সংগৃহীত

মেজর ফাতিমা ইসহাকের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে দক্ষিণ আফ্রিকার সামরিক বাহিনী মুসলিম নারীদের হিজাব পরার অনুমতি দিয়েছে। এই অনুমতির ফলে মুসলিম নারী সৈনিকরা শর্তসাপেক্ষে ইউনিফর্মের সঙ্গে হিজাব পরতে পারবে। শর্ত হলো, হিজাবের কারণে র‍্যাংকিং ব্যাচসহ সামরিক নিদর্শনগুলো ঢাকা পড়তে পারবে না।

দক্ষিণ আফ্রিকার শ্রমবিষয়ক আইনজীবী নাজিমা মুহাম্মদ বলেন, ‘এটি শুধু মুসলিম বা মুসলিম নারীদের বিজয় নয়। এটি দক্ষিণ আফ্রিকার বিজয়। এটি বৈষম্যের বিরুদ্ধে জয় এবং মানবাধি-কারের জয়। আমরা চাই, রাষ্ট্র এই অধিকারগুলো সহজেই প্রদান করুক।’

হিজাব পরিধান করায় দক্ষিণ আফ্রিকার সামরিক বাহিনী ফাতিমা ইসহাকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করে। ফাতিমা এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ হন। আদালত সামরিক বাহিনীতে হিজাব অনুমোদনের পক্ষে রায় দিলে সামরিক বাহিনী তা মেনে নেয় এবং ফাতিমার শাস্তি প্রত্যাহার করে। আদালত ভবিষ্যতে ‘সাম্য’ বিরোধী সিদ্ধান্তের ব্যাপারে সামরিক বাহিনীকে সতর্ক করে দেয়।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালে ত্রিনিদাদ, ২০১৬ সালে তুরস্ক ও কানাডা নিজ নিজ দেশের পুলিশ বাহিনীতে কর্মরত মুসলিম নারীদের দায়িত্ব পালনের সময় হিজাব পরার অনুমতি দেয়। [সূত্র: নিউজটোয়েন্টিফোর ডটকম]


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ