নির্ভয়ার ধর্ষকের ফাঁসির জন্য জল্লাদ চাইল তিহার জেল

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত চার আসামি  © সংগৃহীত

ভারতের আলোচিত নির্ভয়া ধর্ষণকারীদের ফাঁসি কার্যকর করতে আদালত আগামী ১ ফেব্রুয়ারি তারিখ নির্ধারণ করেছেন। চলতি মাসের ২২ তারিখ তাদের ফাঁসি হওয়ার কথা থাকলেও চার আসামির একজন নতুন করে প্রাণ ভিক্ষার আবেদন করলে তারিখ পেছানো হয়।

এদিকে ওই চার ধর্ষকের ফাঁসি কার্যকরের জন্য উত্তরপ্রদেশের জল্লাদ পবনকে চেয়েছে দিল্লির তিহার জেল কর্তৃপক্ষ। জল্লাদ পবন আগেই ওই চার ধর্ষককে ঝোলাতে প্রস্তুত ছিল বলে জানিয়েছিলেন তিনি।

জল্লাদ পবনকে চাওয়ার বিষয়টি জানিয়েছেন উত্তরপ্রদেশের জেল কর্মকর্তা আনন্দ কুমার। তিনি জানান, ৩১ জানুয়ারি ও ১ ফেব্রুয়ারি এই দুদিনের জন্য পবনকে চাওয়া হয়েছে। মিরাটের বাসিন্দা পবন আগেই জানিয়েছিলেন– তিনি নির্ভয়াকাণ্ডের অপরাধীদের ফাঁসিতে ঝোলাতে প্রস্তুত।

তিনি বলেছিলেন– ওই অপরাধীদের ফাঁসিতে ঝোলানো হলে আমি, নির্ভয়ার বাবা-মা এবং দেশের সবাই সত্যিই স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলব। এ ধরনের মানুষকে ফাঁসিতেই ঝোলানো উচিত।

প্রসঙ্গত চার অপরাধী— বিনয়, অক্ষয়, পবন ও মুকেশ দিল্লিতে ২০১২ সালের ১৬ ডিসেম্বর রাতে ২৩ বছরের তরুণীকে বাসের মধ্যে ধর্ষণ ও নৃশংস অত্যাচার করে। কয়েক দিন পর মেয়েটি মারা যায়। এ ঘটনার নির্মমতার বিরুদ্ধে গোটা দেশ গর্জে উঠেছিল। ২২ জানুয়ারি সকাল ৭টায় দিল্লির তিহার জেলে ফাঁসিতে ঝোলানোর কথা ছিল অপরাধীদের। কিন্তু আসামি মুকেশ নতুন করে ফাঁসি মওকুফের আর্জি জানিয়ে আবেদন করায় মৃত্যুদণ্ড কার্যকর পিছিয়ে যায়।রাষ্ট্রপতি অপরাধীর প্রাণভিক্ষার আবেদন খারিজ করে দেয়ার পর দুই সপ্তাহ সময় দিতে হয়।আবেদন প্রত্যাখ্যান করে দেয়ার কয়েক ঘণ্টা পরেই নতুন করে এ ফাঁসির পরোয়ানা জারি করা হয়।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ