‘ছাত্ররা আমাকে কটূক্তি করেছে, তবুও তাদের অভিনন্দন’

  © সংগৃহীত

ভারতে সিএএ-এনআরসি বিরোধী আন্দোলন থেকে সামান্যও যে সরছেন না প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ এমনটাই পরিস্কারভাকে বুঝিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। কিন্তু মোদির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করাতে ছাত্রছাত্রীরা কটূক্তি করেছে মুখ্যমন্ত্রীকে নিয়ে।

এ জন্য ধর্মতলায় তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ধরনা মঞ্চে মমতা ফের হাজির হয়েছেন। আর সেখানে ছাত্রদের উদ্দেশে বার্তা দিয়ে বললেন, 'পাবলিসিটি পাওয়ার জন্য আন্দোলন করে অনেকে। পড়ুয়ারা তা করবে না। শুধু একটা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আন্দোলন করছে এমন হয়, গোটা দেশজুড়ে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে এই আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে ছাত্রছাত্রীরা।'

সেইসঙ্গে বাম ছাত্রদের কেউ কেউ শনিবার তাকে কটূক্তিও করেছিল বলে এদিন জানান মুখ্যমন্ত্রী। তবে তার কথা হলো যে ছাত্ররা তাকে কটূক্তি করেছে, তাদেরও অভিনন্দন। আন্দোলনকে ভেস্তে দিতে অনেকেই চেষ্টা চালাবে বলে পড়ুয়াদের সতর্কও করে দিয়েছেন তিনি। পরামর্শ দিয়েছেন সবাইকে একজোট থাকার।

মমতা মুখার্জি বলেছেন ‘মানুষের স্বার্থে আন্দোলন করো, কেউকেউ বাসে আগুন দিয়েছে কিন্তু সেটা প্রচার পেতেই করেছে। হিংসা দিয়ে কখনও আন্দোলন হয় না।' সেই প্রসঙ্গে নিজের সিঙ্গুর আন্দোলনের কথাও তুলে ধরেন তিনি।

শনিবার রানি রাসমণি অ্যাভিনিউতে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ধরনা মঞ্চে হামলা চালানো হয়েছিল বলে অভিযোগ যায় মুখ্যমন্ত্রীর কাছে। সেই ঘটনার জন্য পরোক্ষে বাম ছাত্র-যুবদের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছিলেন তিনি। সেইসঙ্গে মত আলাদা হলেও একইসঙ্গে বিরোধী আন্দোলন করার বার্তাও দিয়েছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলা সফরের বিরোধিতায় ছাত্রদের বিক্ষোভ ঘিরে শনিবার সন্ধ্যায় উত্তেজনা ছড়ায় ধর্মতলা চত্বরে। হাতে জাতীয় পতাকা নিয়ে 'আজাদি', 'নরেন্দ্র মোদি গো ব্যাক' স্লোগান দিতে দিতে রাজভবনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন কয়েক'শো পড়ুয়া। রানি রাসমণি অ্যাভিনিউতে যেখানে ধরনা চলছে সেখানে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন তারা। খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে আসেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এর পরে স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে পরিস্থিতি মোকাবিলায় আসরে নামেন তিনি।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ