বিশ্বের প্রভাবশালী নারীর তালিকায় রোহিঙ্গা তরুণী

জেসমিন আক্তার  © সংগৃহীত

বিশ্বের প্রেরণাদাত্রী ও প্রভাবশালী ১০০ নারীর তালিকা প্রকাশ করেছে যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম বিবিসি। এই তালিকায় আছেন এক রোহিঙ্গা তরুণী। তাঁর নাম জেসমিন আক্তার। যুক্তরাজ্যে ক্রিকেট খেলেন তিনি।

বিবিসি তাদের তালিকা প্রকাশ করে বলেছে, এ বছর চূড়ান্ত তালিকা করার ক্ষেত্রে তাদের বিবেচ্য বিষয় ছিল ভবিষ্যতের নারী। এই নারীরা সমাজ বদলে দিচ্ছেন নিজ নিজ জায়গা থেকে।

১০০ জনের তালিকা কয়েকটি ভাগে ভাগ করে উপস্থাপন করেছে বিবিসি। এর মধ্যে পরিবেশে ১৪ জন, শিক্ষায় ১৮ জন, নেতৃত্বে ১৯ জন, সৃজনশীলতায় ১৭ জন, খেলায় ১৩ জন ও মানবাধিকারে ১৯ জন। তালিকায় জলবায়ু পরিবর্তনকর্মী স্কুলছাত্রী গ্রেটা থুনবার্গ থেকে শুরু করে রয়েছে মালয়েশিয়ার লিঙ্গ রূপান্তরকারী নিশা আইয়ুবের নাম।

জেসমিন আক্তারের জন্ম বাংলাদেশের একটি রোহিঙ্গা শিবিরে। জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ও যুক্তরাজ্যের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি কর্মসূচির আওতায় ১০ বছর আগে শরণার্থী হিসেবে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে যুক্তরাজ্যে যান তিনি। তখন তাঁর বয়স আট বছর।

যুক্তরাজ্যে যাওয়ার পর ক্রিকেট খেলায় বিশেষ পারদর্শিতা দেখান জেসমিন। ব্র্যাডফোর্ড শহরে জেসমিন ও তাঁর বন্ধুরা মিলে শুধু এশীয় বংশোদ্ভূত মেয়েদের একটি ক্রিকেট দল গড়ে তোলেন।

এরপর চলতি বছর একটি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট হয়েছে প্রথম ‘স্ট্রিট চাইল্ড ক্রিকেট ওয়ার্ল্ড কাপ’ নামে। সেবামূলক উদ্দেশ্যে চালু করা এই টুর্নামেন্টে ইংল্যান্ড দলের হয়ে খেলার সুযোগ পান জেসমিন। জেসমিন বলেন, ‘মুক্ত মানুষ হিসেবে প্রতিটি নিশ্বাস আপনাকে আরও বেশি আনন্দ দেয়। সেই অনুভূতি কেমন, তা আমিই জানি।’

তালিকায় স্থান পেয়েছেন সাত ভারতীয় নারী। তাঁদের মধ্যে মানবাধিকারে ভারতশাসিত কাশ্মীরের লৌহমানবীখ্যাত মানবাধিকারকর্মী পারভীনা আহাঙ্গারের নাম রয়েছে। ১৯৯০ সালে কাশ্মীরে ভারতের শাসনের বিরুদ্ধে যখন গণ-অভ্যুত্থান তীব্র আকার ধারণ করে, তখন পারভীনার ছেলে নিখোঁজ হয়। এ রকম হাজারো মানুষ তখন নিখোঁজ হয়েছিল। পারভীনা তখন এপিডিপি নামে একটি সংগঠন গড়ে তোলেন। পারভীনা বলেছেন, তিনি এখনো তাঁর ছেলের ফিরে আসার আশা ছেড়ে দেননি।

জলবায়ু পরিবর্তন রোধে সারা বিশ্বে স্কুলশিক্ষার্থীদের আন্দোলনে নেতৃত্ব দিচ্ছে সুইডিশ স্কুলছাত্রী গ্রেটা থুনবার্গ। তার নাম রয়েছে প্রভাবশালী নারী হিসেবে। সে গত বছরের আগস্ট মাসে স্কুল বর্জন করে সুইডিশ পার্লামেন্টের সামনে বিক্ষোভ করে সারা বিশ্বের নজর কাড়ে।

পরিবেশ সচেতনতায় কাজ করে তালিকায় ভারত থেকে স্থান পেয়েছেন প্রখ্যাত পরিবেশবাদী বন্দনা শিবা। অলটারনেটিভ নোবেল পিস প্রাইজ পুরস্কারপ্রাপ্ত শিবা নানা বিপর্যয় থেকে নারীদের সামনে নিয়ে যাওয়ার আশার কথা জানিয়েছেন।

খেলোয়াড় হিসেবে প্রভাবশালী নারীদের একজন ইরানের কিমিয়া আলিজাদেহ। তিনিই প্রথম অলিম্পিক পদকজয়ী ইরানি নারী। ইরান ১৯৪৮ সাল থেকে অলিম্পিক গেমসে অংশ নিচ্ছে, কিন্তু তায়কোয়ান্দোতে কিমিয়া পদক জেতার আগে দেশটির কোনো নারী অ্যাথলেটিকসে পদক জেতেননি।

প্রভাবশালী নেতৃত্বদানকারী নারী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের আলোচিত কংগ্রেস সদস্য আলেকজান্দ্রিয়া ওকাসিও-কর্তেজের নাম রয়েছে তালিকায়। বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমালোচনা করে তুমুল আলোচনায় তিনি। আফগানিস্তানের প্রথম নারী মেয়র জারিফা গাফারির নাম রয়েছে ওই তালিকায়।

সূত্র: বিবিসি


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ