সমীর কুমারের ডাকে প্রতিদিন ছুটে আসে পাঁচ হাজার শালিক

  © সংগৃহীত

একজন পাখিপ্রেমী মানুষ সমর কুমার ঘোষ। যিনি পাবনা শহরে ২০১২ সাল থেকে প্রায় পাঁচ হাজারের ঊর্ধ্বে মুক্ত শালিককে ভালোবাসা দিয়ে কাছে টেনেছেন।

২০১৫ সালে রাজশাহী বন বিভাগ তাঁকে অ্যাওয়ার্ডও দিয়েছেন এমন ভালোবাসার পুরস্কার স্বরূপ! পাবনা শহরে এআর কর্নার মার্কেটের সামনে দাঁড়িয়ে যে কারোরই তার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জন্মাবে।

সমর কুমার বলেন, ‘ওরা প্রতিভোরে সূর্যের আলো ফোটার আগেই আমার এখানে চলে আসে। খাবার খাওয়ার অপেক্ষা করে। আমাকে না পেলে চিৎকার শুরু করে।’ তিনি বলেন, ‘কোনো কারণে তিনি না থাকলে তাঁর দোকানের কর্মচারীদের বলা আছে শালিকের খাবার রেডি রাখার।’

সমর কুমার ঘোষ বলেন, ‘ছোটবেলা থেকেই পশুপাখির প্রতি দরদ ছিল। একদিন দোকানের সামনে কয়েকটি শালিককে খাবারের জন্য চেঁচামেচি করতে দেখে তাদের চানাচুর খেতে দেই। পরদিন থেকে খাবারের জন্য পাখির সংখ্যা বাড়তে থাকে।’

শহরের প্রধান সড়কে প্রতিদিন ভোরের এই দৃশ্য দাড়িয়ে দেখেন পথচারীরা। অনেকে ছবি তোলেন, ভিডিও করেন। অনেকে ধন্যবাদ জানান সমীর কুমার।

পাবনার সামাজিক বন বিভাগের কর্মকর্তা ফিরোজ আহমেদ বলেন, সমর কুমার ঘোষ যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তা সত্যিই অনন্য। সামাজিক বন বিভাগ এটাকে খুব ইতিবাচক হিসেবে দেখছে। সমর কুমারের মতো অন্যরাও এভাবে পশুপাখির প্রতি ভালোবাসা নিয়ে এগিয়ে আসবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ