পরীক্ষা পেছাতে বিশৃঙ্খলা, ১৫ শিক্ষার্থীর মুচলেকা

  © ফাইল ফটো

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বাকৃবি) শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে ভেটেরিনারি অনুষদের ১৫ শিক্ষার্থীর ছয় ও বারো মাসের বৃত্তি কর্তন এবং সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীদের অভিভাবকের কাছে থেকে মুচলেকা গ্রহণ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব রেসিডেন্স এন্ড ডিসিপ্লিন কমিটির সভায় শাস্তির এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

শাস্তিপ্রাপ্তরা হলেন- ভেটেরিনারি অনুষদের তৃতীয় বর্ষের মো. শাহরিয়ার খন্দকার, আবদুল্লাহ আল বাকী, পার্থ সরকার, অনিক চৌধুরী, আবির হোসেন, মো. আসাদুজ্জামান নিলয়, মো. হাসিব উল হাসান, এইচ এম নাসিম মোর্শেদ, সুজন কুমার, মো. এম হাসিব উল ইসলাম, ছামিউল ইসলাম, মোছা. মরিয়ম আকতার মীম, তাসমিয়া হাবীব এবং সুমন দে।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেরিনারি অনুষদের স্নাতক লেভেল ৩, সেমিস্টার ১ শ্রেণীর ফাইনাল পরীক্ষা পেছানোকে কেন্দ্র করে এ বছরের ১৬ মে কতিপয় শিক্ষার্থী অনুষদের ডিন অফিসে তালা দেয় এবং বিশৃঙ্খলা তৈরি করে। এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে ভেটেরিনারি অনুষদ।

এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব রেসিডেন্স এন্ড ডিসিপ্লিন কমিটির সভায় তদন্ত কমিটি রিপোর্ট অনুযায়ী বাকৃবি ‘অর্ডিন্যান্স ফর স্টুডেন্ট ডিসিপ্লিন’ এর ১৩নং ধারায় সংশ্লিষ্ট ১৫ শিক্ষার্থীকে শাস্তি দেয়া হয়। শাস্তি হিসেবে সংশ্লিষ্ট শিক্ষার্থীদের ছয় ও বারো মাসের বৃত্তি কর্তন এবং অভিভাবকদের কাছ থেকে মুচলেকা গ্রহণ করা হয়।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বোর্ড অব রেসিডেন্স এন্ড ডিসিপ্লিন কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক ড. মো. আজহারুল হক বলেন, ভেটেরিনারি অনুষদের তদন্ত কমিটির রিপোর্ট অনুযায়ী বোর্ড অব রেসিডেন্স এন্ড ডিসিপ্লিন কমিটি শাস্তির এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্ডিন্যান্সে আরও কোঠর শাস্তির বিধান থাকলেও শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে শাস্তি অনেকটাই কমানো হয়েছে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ