ইউজিসির কাছে বেরোবি ভর্তি জালিয়াতির প্রতিকার চায় শিক্ষকরা

  © ফাইল ফটো

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় (বেরোবি) সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘বি’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতির অভিযোগের সুষ্ঠু তদন্ত না পেয়ে এবার ‘সচেতন শিক্ষকবৃন্দ’ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিন (ইউজিসি) চেয়ারম্যান বরাবর আবেদন করেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) তারা এই আবেদন পাঠিয়েছেন।

লিখিত আবেদনে বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘বি’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষায় মিশকাতুল জান্নাত নামের একজন শিক্ষার্থী দুটি ইউনিটে ফেল করে ‘বি’ ইউনিটে প্রথম স্থান দখল করেছে। ওই শিক্ষার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের একজন শিক্ষকের ছোট বোন। এ নিয়ে গণমাধ্যমে অনেক খবর প্রকাশিত হয়েছে।

সচেতন শিক্ষকবৃন্দের লিখিত দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ওই শিক্ষার্থীর ভর্তি স্থগিত করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। ওই তদন্ত কমিটিতে শিক্ষানবিশ একজন শিক্ষককে সদস্যসচিব করা হয়েছে। বিদ্যমান তদন্ত কমিটির পরিবর্তে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সদস্য, সাংবিধানিক পদধারী পদস্থ কর্মকর্তা কিংবা শিক্ষাবিদদের দ্বারা একটি কমিটি গঠনের আবেদন জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বরাবর আবেদনও করেছিল ‘সচেতন শিক্ষকবৃন্দ’।

একই সঙ্গে তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি কার্যক্রম স্থগিত রাখারও দাবি জানিয়েছিলেন তারা।

সচেতন শিক্ষকবৃন্দ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান বরাবর লিখিত আবেদনে তারা বলেন, আমারা আশঙ্কা করছি, যদি এই ধরনের অন্যায় সংঘটিত হয়ে থাকে, তাহলে শুধু একজনের ক্ষেত্রে না ঘটে তা অনেকের ক্ষেত্রেই ঘটতে পারে।


মন্তব্য

সর্বশেষ সংবাদ